বিকল্পধারায় শমসের ম‌বিনসহ তিন নেতা

বিকল্পধারায় শমসের ম‌বিন
ড. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর বিকল্পধারায় যোগ দিয়েছেন বিএনপির সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী, ছাত্রদলের প্রথম নির্বাচিত সভাপতি গোলাম সারোয়ার, ইঞ্জিনিয়ার শফিকুর রহমান। আজ শুক্রবার বিকেলে তারা বিকল্প যুবধারার বিশেষ কাউন্সিলের অনুষ্ঠানে যোগ দেন। এরপর বি. চৌধুরীর হাতে ফুল দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিকল্পধারায় যোগদান করেন তারা।
অনুষ্ঠানে বিএনপি নেতাদের সমালোচনা করে বি. চৌধুরী বলেন,‘সিলেটে সমাবেশে বিএনপির নেতারা জিয়াউর রহমানের নাম বলেননি। বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা যিনি দিলেন তার নামটি কেউ বলতে সাহস পাননি। কী মনে হয়? তারা কি আত্মসমর্পণ করেছেন, কার কাছে? এবং কেন? এ দু’টি প্রশ্ন জনগণের মনে থেকে যাবে। ’
সাবেক রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘সেখানে জিয়াউর রহমানের নাম কেউ বলেননি। এছাড়া মাওলানা ভাসানী, শেরে বাংলার নামও কেউ উচ্চারণ করেনি। মুক্তিযুদ্ধের মহাধিনায়ক ওসমানীর নাম উচ্চারণ কেউ করলো না। তাদের কথা বলা উচিত ছিল না? চিৎকার করে বলেন বি.চৌধুরী, কেন বলেন নাই আপনারা? জবাব দিতে হবে কেন বলেন নাই। আপনারা সত্যই যদি মুক্তিযুদ্ধে বিশ্বাস করে থাকেন। আপনাদের যদি সত্যিই স্বপ্ন ছিল এই রঙিন পতাকাকে সম্মান দেখানো। কিন্তু দেখান নাই।’
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সদ্য ২০ দলীয় জোট ত্যাগ করা বাংলাদেশ নাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গাণি ও মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভুঁইয়া, এনডিপি চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মোর্ত্তুজা এবং লেবার পার্টির একাংশ মহাসচিব হামদুল্লাহ মেহেদী।
প্রসঙ্গত, ২০০১ সালে বিএনপির নেতৃত্বে সরকার ক্ষমতাসীন হবার পর শমসের মবিন চৌধুরী পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। চাকরি থেকে অবসর গ্রহণের পর তিনি বিএনপিতে যোগ দেন। বিএনপিতে যোগ দেবার পরে তিনি দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আস্থাভাজন হিসেবে পরিচিত হয়ে ওঠেন। কিন্তু ২০১৫ সালের অক্টোবরে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরে দাঁড়ান শমসের মবিন চৌধুরী। তখন শুধু দলীয় পদ নয়, রাজনীতি থেকেই অবসরের কেথা জানিয়েছিলেন তিনি।
শমসের মবিন চৌধুরী বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। স্বাধীনতা যুদ্ধে তার সাহসিকতার জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে বীর বিক্রম খেতাব প্রদান করে। সূত্র- পূর্বপশ্চিমবিডি

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।