বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ২ লাখ ছাড়িয়ে গেছে

করোনা ভাইরাস এর দাপটে পুরো বিশ্ব এখন স্তম্ভিত। কোন ক্রমেই এই মহামারী থেকে মৃত্যুর মিছিল কমানো যাচ্ছে না। ক্রমেই বেড়ে চলেছে লাশের সারি। পুরো বিশ্বজুড়ে প্রতি দিনই সংক্রামিত মানুষের সংখ্যা বাড়ছে আর সেই সাথে সাথেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যা। কোভিড ১৯ প্রথম চীনের উহান শহরে গত বছরের ৩১ ডিসেম্বরে হানা দেয়। তারপর এই বছরের ১১ জানুয়ারি প্রথম মৃত্যু হয়। তারপর সেটি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে এবং অঞ্চলে খুবই দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।

১১ জানুয়ারি থেকে তিন মাস বা ৯০ দিনের মাথায় অর্থাৎ ১০ এপ্রিলে মৃত্যের সংখ্যা ১ লাখ ছাড়িয়ে যায়। পুরো বিশ্বে মহা উদ্বেগ আর আতংকের মধ্যে দিয়েই পরবর্তী ৭ দিনের মাথায় ৫০ হাজার বেড়ে দেড় লাখের পৌছে যায় মৃত্যুর সংখ্যা এবং তার পরবর্তী ৮ দিনের মাথায় আরো ৫০ হাজার মানুষ এই করোনা ভাইরাসে সংক্রামিত হয়ে ২ লাখে পৌছে যায় মৃত্যুর সংখ্যা। সারা বিশ্বজুড়ে ১০ এপ্রিল থেকে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত মাত্র ১৫ দিনেই পৃথিবী থেকে ১ লাখ মানুষের মৃত্যু হয়ে গেল।

পৃথিবীর কোন যুদ্ধে ও এই পনের দিনের মধ্যে এত লোকের প্রাণহানির ঘটনা ঘটে নাই। যা মানুষ হিসেবে আমাদেরকে খুবই উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠার মধ্যে ফেলে দিল। প্রতি দিনই এই রকম মানুষের মৃত্যুর সংবাদ শুনতে শুনতে আমরা এখন চরম অস্বাভাবিক ভাবেই দিনাতিপাত করছি। কবে কখন জানি দেখি আমি নেই, আত্বীয় স্বজন নেই আমরা নেই! এই আতংকেই পার হচ্ছে এখনকার দিনগুলো।

করোনা ভাইরাসের সার্বক্ষণিক তথ্য প্রকাশকারী ওয়াল্ডোমিটারসের তথ্য মতে, পুরো বিশ্বের ২১০ দেশ ও অঞ্চলে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়েছে। তাদের তথ্য মতে, ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত পুরো বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় ২৯ লাখ। আর এর মধ্যে প্রাণ গেছে ২ লাখ মানুষের। আর এই করোনা ভাইরাসের ভয়াল থাবা থেকে সুস্থ হয়েছেন প্রায় ৮ লাখ ১৬ হাজার মানুষ।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে এই পর্যন্ত বিশ্বে ইউরোপ মহাদেশের দেশগুলোই বেশী মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। মৃত্যুর দিক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের ৫২ হাজারের উপরে, ইতালি সাড়ে ২৫ হাজার,স্পেন ২২ হাজারের উপরে, ফ্রান্স ২২ হাজার এবং যুক্তরাজ্যে ২০ হাজার।
বিশ্বজুড়ে বিরাজ করছে এক অস্বস্তিকর এবং মহা আতংক আর উদ্বেগ।এখন পর্যন্ত এই করোনার প্রতিষেধক বা টিকা আবিষ্কার করতে পারেনি। যার দরুণ প্রতি নিয়ত আমরা মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেই চলেছি।

মহান অধিপতি বিশ্বব্রহ্মাণ্ড এর মহান মালিক আল্লাহ সুবাহানু তায়ালা এই পবিত্র মাহে রমযানের উসিলায় সবাইকে মাফ করে দিবেন, এই প্রত্যাশায় আমি করি। অচিরেই তিনি তার সৃস্টিজগত কে আবারো মানুষের চলাচলের অবাধ পরিবেশ ফিরিয়ে দিবেন। করোনা মুক্ত হয়ে উঠবে পুরো বিশ্বজুড়ে। মানুষ অবরুদ্ব জীবন থেকে ফিরিয়ে পাবে তার স্বাভাবিক জীবন।

লেখক: মো.আলী আশরাফ মোল্লা
কলামিস্ট, সাংস্কৃতিক কর্মী এবং সংগঠক।

প্রকাশিত মতামত লেখকের একান্তই নিজস্ব। পাহাড়বার্তার -এর সম্পাদকীয় নীতি/মতের সঙ্গে লেখকের মতামতের অমিল থাকতেই পারে। তাই এখানে প্রকাশিত লেখার জন্য পাহাড়বার্তা কর্তৃপক্ষ লেখকের কলামের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে আইনগত বা অন্য কোনও ধরনের কোনও দায় নেবে না

আরও পড়ুন
Loading...