বীর বাহাদুরের নির্বাচনী অঙ্গিকার : রোয়াংছড়ি-থানচিতে ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মান হচ্ছে ৩টি সেতু

একসময়ের অবহেলিত পার্বত্য জেলা বান্দরবান এখন যেন আর অবহেলিত নয়। আওয়ামীলীগ সরকারের একের পর এক উন্নয়ন কার্মকান্ডে বদলে যাচ্ছে বান্দরবান। এরি অংশ হিসাবে এবার জেলার দুই উপজেলায় নির্মান করা হবে তিনটি সেতু। আর এ নিয়ে এস বাসু দাশ এর বিশেষ প্রতিবেদন।
পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, গত ১৩ জুন পরিকল্পনা কমিশন কর্তৃক জেলার সাঙ্গু নদীর উপর তিন সেতু নির্মান প্রকল্প অনুমোদিত হলেও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রশাসনিক অনুমোদন দেন ১৮ জুন। প্রায় ৫০ কোটি টাকা ব্যয়ে জুলাই ১৯ সাল থেকে জুন ২২ অর্থ বছরের মধ্যে জেলার দুই উপজেলায় এই তিন সেতুর নির্মান কাজ শেষ করা হবে।
আরো জানা গেছে,বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার বেতছড়া বাজার সংলগ্ন সাঙ্গু নদীর উপর সেতু,থানচি উপজেলার বলিপাড়া ইউনিয়নের বলিবাজার সংলগ্ন সাঙ্গু নদীর উপর সেতু, একই উপজেলার সোনাইখালের উপর জ্ঞান লাল পাড়া সেতু নির্মান করা হবে। তিনটি সেতু নির্মানের কারনে দুই উপজেলার ৫০ হাজার মানুষ সড়ক যোগাযোগ ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে উপকৃত হবে। এর ফলে এলাকার শিক্ষা, স্বাস্থ্য সেবা উন্নয়নের পাশাপাশি বদলে যাবে এলাকার অর্থনীতি। স্থানীয় আদিবাসী পরিবারগুলোর শিক্ষা ও স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতের পাশাপাশি জুম পাহাড়ের উৎপাদিত কৃষিপণ্য বাজারজাত করে স্বাবলম্বি হবে, বাড়বে পর্যটকদের আনাগোনা।
এই ব্যাপারে থানচি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান থোয়াইহ্লা মং মার্মা পাহাড়বার্তা’কে বলেন, থানচিতে এই দুই সেতু নির্মানের ফলে পাশ্ববর্তী উপজেলা রুমার বগালেক পর্যটনে অনাসয়ে যাওয়া যাবে। তিনি আরো বলেন, এর ফলে পর্যটকের আগমন বাড়বে।
পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি’র একান্তিক প্রচেষ্টা ও নির্বাচনী অঙ্গিকার পূরণের অংশ হিসাবে সেতুগুলো নির্মানে অনুমোদন পাওয়ায় স্থানীয়রা আনন্দ প্রকাশ করছে। অনেকে মনে করেন, আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে রুমা ও থানচি উপজেলায় আগে ২টি সাঙ্গু সেতু নির্মানের ফলে দুই উপজেলার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নত হয়। আর নতুন এই ৩টি সেতু নির্মানের ফলে জেলার একসময়ের দূর্গম থানচি ও রোয়াংছড়ির যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন অনেক এলাকায় সহজে স্থানীয়রা যাতায়ত করতে পারবে, উপজেলাগুলোর পর্যটন উন্নয়নে সহায়ক হবে।
রোয়াংছড়ি উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হ্লা থু খ্রি মার্মা পাহাড়বার্তা’কে জানান, উপজেলার বেতছড়ায় সাঙ্গু নদীর উপর সেতু নির্মানের উদ্দ্যেগের ফলে আমাদের দীর্ঘদিনের প্রত্যাশা পূরন হওয়ার পথে, তাই আমরা বর্তমান সরকারকে ধন্যবাদ দিতে চায়।
রোয়াংছড়ি উপজেলার বেতছড়া বাজার সংলগ্ন সাঙ্গু নদীর উপর সেতুটি বান্দরবানের রুমা-থানচি উপজেলা সড়কের সাথে বৈদ্যপাড়া,কাইন্তার মুখ ও পাগলাছড়া হয়ে রোয়াংছড়ি উপজেলা সদরের সাথে সংযোগ স্থাপন হবে। থানচি উপজেলার বলিবাজার সংলগ্ন সাঙ্গু নদীর উপর সেতু থানচি-বান্দরবান সড়কের সাথে সংযোগ স্থাপন করে থানচি উপজেলা সদর-রুমার বগালেক সড়ক ও জেলার সাথে সংযোগ স্থাপন হবে।
এই ব্যাপারে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের প্রকল্প পরিচালক আব্দুল আজিজ পাহাড়বার্তা’কে বলেন, তিন সেতুর কাজ দ্রুত শুরু করা হবে। এই সেতু নির্মানের ফলে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নের ফলে এলাকার অর্থনীতি চাঙ্গা হবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।