বৈসাবি ও বাংলা নববর্ষ সকল মানুষের মাঝে ঐক্যের বন্ধন দৃঢ় করে : কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা

বৈসাবি ও বাংলা নববর্ষ বাংলাদেশের আবহমানকালের অসাম্প্রদায়িক ঐতিহ্যের প্রবাহমানধারা। এদিনে জাতি-ধর্ম-বর্ণ-ভাষা ও সাংস্কৃতিক ভিন্নতা ভুলে মানুষ মানুষকে অতীত ভুলে আপন করে নেয়। বৈসাবি ও বাংলা নববর্ষ সকল মানুষের মাঝে অন্যরকম ঐক্যের বার্তা নিয়ে যায়। মানবিক বন্ধনকে করে দৃঢ়।

খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা আজ মঙ্গলবার সকালে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ আয়োজিত ‘বৈসাবি ও বাংলা নববর্ষ’ উপলক্ষে আয়োজিত বর্ণিল শোভাযাত্রা উদ্বোধনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপর্যুক্ত কথাগুলো বলেন।

কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা পরিষদ প্রাঙ্গনে শান্তির প্রতীক সাদা পায়রা ও রঙিন বেলুন উড়িয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে শোভাযাত্রা’র উদ্বোধন করেন। পরে বাঙালি, চাকমা, মারমা, ত্রিপুরাসহ সকল সম্প্রদায়ের উৎসবঘন পরিবেশে র‌্যালীতে অংশ নেন।

র‌্যালীটি পরিষদ থেকে শুরু হয়ে জেলা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে টাউন হলে গিয়ে শেষ হয়। এতে বর্ণিল পোশাকে ঐতিহ্যকে ধারণসহ নিজ নিজ সংস্কৃতিমন্ডিত নৃত্য-গীত উৎসবে মেতে উঠে।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা আরো বলেন, এই উৎসব আমাদের সবার। সকল সম্প্রদায়ের মাঝে ঐক্যের বন্ধন সৃষ্টির মধ্য পাহাড়ে উৎসবে মুখরিত হয়ে উঠবে পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়ি। সকলে মিলেমিশে শান্তিপূর্ণ অবস্থান সৃষ্টিসহ সম্প্রীতির খাগড়াছড়ি গড়ে তোলা আহ্বান জানান তিনি।

খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের মূখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ বশিরুল হক ভূঞা’র স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে সূচিত সভায় সভাপতিত্ব করেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু।

এসময় সংরক্ষিত আসনের এমপি বাসন্তী চাকমা, খাগড়াছড়ি ডিজিএফআই’এর ডেট কমান্ডার কর্ণেল সরদার ইসতিয়াক আহম্মেদ, জেলা প্রশাসক প্রতাপ চন্দ্র বিশ্বাস, খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়নের প্রতিনিধি লে: কর্ণেল সাইফুল ইসলাম সুমন,পিএসসি, খাগড়াছড়ি রিজিয়নের স্টাফ অফিসার (জিটুআই) মেজর মো: জাহিদ হাসান, খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী, খাগড়াছড়ি সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শানে আলম, জেলা পরিষদ সদস্য যথাক্রমে সদস্য আশুতোষ চাকমা, এমএ জব্বার, শুভ মঙ্গল চাকমা,নিলোৎপল খীসা, শাহিনা আক্তার, শতরূপা চাকমা ও পার্থ ত্রিপুরা জুয়েল, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল্লাহ এবং জনসংযোগ কর্মকর্তা চিংলামং চৌধুরীসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দরা এতে অংশ নেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।