বৌদ্ধমূর্তির বয়স নির্ধারণে প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগের প্রতিনিধি দল বান্দরবানে

বান্দরবান শহরের ঐতিহ্যবাহী রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের হাজার বছরের পুরনো বৌদ্ধ মূর্তির বয়স নির্ধারণে প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগের একটি প্রতিনিধি দল বান্দরবান সফর করেছেন।

আজ রোববার (১৬ আগস্ট) সকালে প্রত্নতাত্ত্বিক অধিদপ্তরের আঞ্চলিক পরিচালক ডঃ মোঃ আতাউর রহমানের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধি দল রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারের মূর্তিগুলোর বয়স নির্ধারন, আসল নাকি নকল মূর্তি, তা নির্ধারণের জন্য নমুনা সংগ্রহ করে তারা তিন ঘন্টা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখেন। তারা পরে এই পরীক্ষার ফলাফল জানাবে।

এ সময় সেখানে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা, আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য ক্যএসমং’সহ বৌদ্ধ ভিক্ষু ও বৌদ্ধ সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বিহার সূত্রে জানা যায়,বান্দরবানের রাজগুরু বুদ্ধ বিহারে প্রায় আড়াই হাজার বছরের পুরনো একটি বুদ্ধমূর্তি সংরক্ষিত রয়েছে। পাশ্ববর্তী দেশ মিয়ানমারের আরাকান রাজ্য থেকে এই মূর্তিটি তৎকালীন সময়ে বান্দরবানে আনা হয়। সে সময় ৯ম বোমাং সার্কেলের রাজা সানাইঞো এই মূর্তিটি রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারে সংরক্ষণ করেন। তবে এ পুরনো ঐতিহ্যবাহী বুদ্ধমূর্তি আসলটি কিনা এবং কত সালে নির্মাণ করা হয়েছিল, এটির বয়স নির্ধারণে প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগের সদস্যরা বান্দরবানে রাজগুরু বৌদ্ধ বিহার পরিদর্শন করেন।

এই ব্যাপারে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্যশৈহ্লা বলেন, বান্দরবানের রাজগুরু বিহারে যে বৌদ্ধ মূর্তি রয়েছে সেই ধরণের মাত্র তিনটি মূর্তি বাংলাদেশ রয়েছে। বুদ্ধ মূর্তির বয়স নির্ধারণ করা হলে এটি দেশের প্রত্নতাত্ত্বিক সম্পদ হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।