ভালো কাজে কাপ্তাই ছাত্রলীগ

কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগ সম্পাদক এ আর লিমনের ফেইসবুক স্ট্যাটাস এর সূত্র ধরে কাপ্তাই থেকে মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়েকে পরিবারের হাতে হস্তান্তর
চট্রগ্রাম মহানগর এর পাহাড়তলি থানাধীন উত্তর কাট্রলি এলাকার মৃত সৈয়দ আহম্মেদ কবিরের মেয়ে সৈয়দা শাবনুর বেগম ৫ বছর বয়স হতে মানসিক ভারসাম্যহীন। অষ্টাদশী এই কন্যাকে বেশ কয়েকদিন ধরে পাওয়া যাচ্ছে না। পরিবারের সবাই হন্য হয়ে যখন তাকে খুঁজে পাচ্ছেনা, ঠিক তখন পরিবারের কাছে আসে সুসংবাদ। কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এ আর লিমনের ফেইসবুক স্ট্যাটাস এর সূত্র ধরে আজ সোমবার তাকে কাপ্তাই উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামের মাধ্যমে তার বড় ভাই সৈয়দ মো: নাছির উদ্দিনের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
এসময় কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি অমিত বিশ্বাস বাবলু, কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম সুমন,পবন পাল,মহিউদ্দিন নোমান, অভিজিত দাশ,নাইড়ু রাখাইন, সাইসিং মার্মা এবং মো: আবুল কাশেম উপস্থিত ছিলেন। কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগ সম্পাদক এ আর লিমন এই প্রতিবেদককে জানান, গতকাল রোববার কাপ্তাই উপজেলা সদর বড়ইছড়িতে এক মানসিক ভারসাম্যহীন মেয়েকে দেখে তার সন্দেহ হয়, মেয়েটা কোন ভালো পরিবারের সন্তান মনে হয়। অবশেষে তিনি বিষয়টি ১ নং চন্দ্রঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবীকে জানালে, তিনি এবং চেয়ারম্যান মেয়েটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করিয়ে দেন এবং তার নিজের ফেইসবুক একাউন্টে একটি স্ট্যাটাস দেন। অবশেষে তার স্ট্যাটাস এর সূত্রধরে নানিয়াচর উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা রিপন দাশ মেয়েটার পরিবারের সাথে আকবর শাহ থানার মাধ্যমে যোগাযোগ করে।
আজ সোমবার কাপ্তাই উপজেলা সদরে মেয়েটার ভাই সৈয়দ নাছির উদ্দিন এই প্রতিবেদককে জানান, তাদের পরিবারে অভাব নাই, এই বোনটাকে নিয়ে তারা সবসময় দু:চিন্তায় থাকেন। তিনি কাপ্তাই উপজেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দদের ধন্যবাদ জানান।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।