ভূমি বিরোধ কমিশনের বিধিমালা চূড়ান্ত হলেই ২২হাজার আবেদনের শুনানি শুরু হবে

পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনের তৃতীয় বৈঠক
বিধিমালা চূড়ান্ত হলেই পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনে জমা পড়া ২২ হাজার আবেদনের শুনানি শুরু হবে। ইতিমধ্যে ভূমি কমিশনের বিধিমালা খসড়া তৈরী হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টায় রাঙ্গামাটি সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনের তৃতীয় বৈঠকে পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনের চেয়ারম্যান (অব:) বিচারপতি মোহাম্মদ আনোয়ার উল হক একথা বলেন।
ঘন্টাকাল ব্যাপী বৈঠকে পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনের চলমান কার্যক্রম সংক্রান্ত আলোচনা চলে। বৈঠক শেষে পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তি কমিশনের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ আনোয়ার উল হক গণমাধ্যম কর্মীদের জানান, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ এই খসড়ার উপর সংশোধনী দেয়ায় তা চূড়ান্তকরণের পর্যায়ে রয়েছে। বৈঠকে পার্বত্য ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তিতে কমিশনের গৃহীত সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হয়।
কমিশনের সদস্য সন্তু লারমা জানান, বিধি প্রণয়ন ছাড়া কমিশনের কাজ এগিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। সরকার যত দ্রুত বিধিমালা প্রণয়ন করবে কমিশন তত তাড়াতাড়ি কাজ শুরু করতে পারবে।
চাকমা রাজা ব্যারিস্টার দেবাশীষ রায় বলেন, ভারত প্রত্যাগত শরণার্থী পুনর্বাসিত করার বিষয়ে ভূমি কমিশন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করবে বলে এই বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে।
এসময় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় সন্তু লারমা, রাঙ্গামাটি চাকমা সার্কেল চীফ ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায়, বান্দরবান বোমাং সার্কেল চীফ উ চ প্রু চৌধূরী, খাগড়াছড়ি মং সার্কেল চীফ এর প্রতিনিধি শৈলা প্রু চৌধূরী, রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ, রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, বান্দরবান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাচিং প্রু চৌধূরী উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।