মহালছড়িতে গৃহবধূর লাশ উদ্ধার, স্বামী আটক

dead-body-1খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার মহালছড়ি উপজেলায় ময়না আক্তার (১৯)নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার দূর্গম ক্যায়াংঘাট এলাকার একটি জলাশয় থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী রবিউল ইসলামকে আটক করা হয়েছে।
ময়না আক্তারের বাবা ময়নুল ইসলাম জানান, একই গ্রামের বাসিন্দা তোতা মিয়ার ছেলে
রবিউল ইসলাম বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ময়না আক্তারের সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে
তোলে। এর একপর্যায়ে ময়না আক্তার গর্ভবতী হয়ে পড়ায় সে রবিউল ইসলামকে বিয়ের জন্য
চাপ দেয়। তবে নানা অজুহাত দেখিয়ে ময়নাকে বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায় রবিউল। পরে
প্রায় মাস দেড়েক আগে সামাজিক বিচারে তাদের বিয়ে হয়। এরপর থেকে প্রায় প্রতিনিয়ত ময়নার উপর শারীরিক নির্যাতন চালায় স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন।
ময়নুল ইসলামের অভিযোগ, রবিউল ইসলাম ও পরিবারের লোকেরা তার মেয়েকে হত্যা করেছে। এ ঘটনায় নিহত ময়নার স্বামী রবিউল ইসলামকে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।
এদিকে মহালছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেমায়ুন কবীর জানান,লাশ উদ্ধারের পর সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।