মাটিরাঙ্গায় ছেলের হাতে বাবা খুন

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় ট্রাক্টর বিক্রিকে কেন্দ্র মো. মফিজুল ইসলাম (৬২) নামের এক কৃষক ছেলের হাতে খুন হয়েছেন। রোববার বেলা ১১টার দিকে মাটিরাঙ্গার তবরলছড়ি ইউনিয়নের সিংহপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে ঘাতক ছেলে মো. জসিম উদ্দিন (২৮) পলাতক রয়েছেন।
নিহত মফিজুল ইসলাম সিংহ পাড়ার মৃত সায়েদ আলীর ছেলে। তিনি চার ছেলে ও তিন মেয়ের জনক।
নিহতের আত্মীয়-স্বজন ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বেশ কিছুদিন আগে জমি চাষের জন্য একটি ট্রাক্টর ক্রয় করেন কৃষক মফিজুল ইসলাম। যৌথ পরিবারে থাকা ছেলে জসিম উদ্দিন ঠিকমতো কৃষিকাজ না করার কারণে তিনি ট্রাক্টর বিক্রি করে দেবেন বলে জানান। বিষয়টি নিয়ে রোববার সকালে বাবা-ছেলে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে ছেলে জসিম উদ্দিন ধারালো দা দিয়ে বয়োবৃদ্ধ বাবা মফিজুল ইসলামের ঘাড়ে একাধিক কোপ দেয়। এ সময় তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। ঘটনার পরপরই নিহতের আত্মীয়-স্বজন তাকে খাগড়াছড়ি হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের ছোট ভাই মো. নুরু মিয়া এ ঘটনায় মামলা দায়ের করবেন জানিয়ে বলেন, আমার ভাইকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। এমন ছেলের বেঁচে থাকারও কোনো অধিকার নেই।
খাগড়াছড়ি আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. ত্রিটন চাকমা জানান, নিহতের ঘাড়ের বাম পাশে দায়ের কোপ ছিল।
এ বিষয়ে মাটিরাঙ্গা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. সাহাদাত হোসেন টিটো বলেন, এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।