মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে বান্দরবানে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মনির আহম্মদ এর বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টার মামলাকে ভিত্তিহীন ও দুরভিসন্ধিপূর্ণ মামলা বলে দাবি করে এর প্রতিবাদে ও নেপথ্যে থাকা ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করার দাবীতে বান্দরবানে সংবাদ সম্মেলন করেছে এই মুক্তিযোদ্ধার পরিবার।

আজ শনিবার (২৩নভেম্বর) সকাল ১১টায় বান্দরবানের একটি রেষ্টুরেন্টের কনফারেন্স রুমে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযোদ্ধা মনির আহম্মদ এর কণ্যারা বলেন, গত ২মাস পূর্বে এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ এনে আমার পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মনির আহম্মেদের বিরুদ্ধে ২০ নভেম্বর মনোয়ারা বেগম নামে এক নারী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। এ অভিযোগ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। গত দুইমাস আগে মুক্তিযোদ্ধা মনির আহম্মেদ “বাইপাস সার্জারী”র জন্য ভারতের বেঙ্গালোরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল।

এসময় মুক্তিযোদ্ধা মনির আহম্মদ এর পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, বান্দরবানে আবদুর রহিম নামে এক ব্যক্তির সাথে মুক্তিযোদ্ধা মনির আহম্মেদ এর সাথে জমি সংক্রান্ত মামলা চলছে, এ মামলাটা তুলে নেয়ার জন্য আবদুর রহিম ষড়যন্ত্র করে মনোয়ারা বেগম এর মাধ্যমে তার শিশু কন্যাকে ধর্ষণ চেষ্টার এ মামলা সাজিয়েছে।

এসময় মুক্তিযোদ্ধা মনির আহম্মেদের পরিবারের সদস্যরা একজন মুক্তিযোদ্ধার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে মামলা দায়ের ও তাকে অসুুস্থ অবস্থায় গ্রেফতার করার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করে দোষী ব্যক্তিদের শাস্তি প্রদানের জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানান।

সংবাদ সম্মেলনে মুক্তিযোদ্ধা মনির আহম্মদের সহধর্মীনি রওশন আরা বেগম, মেয়ে নাসরিন আক্তার, ফারজানা আক্তার মিলি, শারমিন আক্তার, কামরুন নেছা মুক্তা, ছেলে মোঃ মাহবুব করিমসহ বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিল।

প্রসঙ্গত,গত ২০ নভেম্বর বান্দরবানে ৪র্থ শ্রেনির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে মুক্তিযোদ্ধা মনির আহম্মদের বিরুদ্ধে বান্দরবান সদর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে বাদী হয়ে একটি দায়ের করে মনোয়ারা বেগম নামে এক নারী।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।