মা আমাকে সেমাই খাওয়াবেন তো ?

কাপ্তাইয়ে ঈদ বস্ত্র ও নগদ অর্থ বিতরণ করছেন কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন
“মা” কাল কিন্তু আপনার এই ছেলে আপনার পরিবারের হাসির মুহুর্তটা দেখতে আরেকবার আসবে। আমাকে তখন সেমাই খাওয়াবেন তো? রাঙামাটির কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন আজ শুক্রবার বিকালে উপজেলা বিভিন্ন স্থানের হত দরিদ্রদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে ঈদ বস্ত্র ও নগদ অর্থ বিতরণ করার পর হত দরিদ্র পরিবারগুলোর মায়েদের একথা বলেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কাপ্তাইয়ের নতুন বাজার, কেপিএম টিলা, কাপ্তাই ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন বাস স্টেশন,ব্যঙছড়ি এলাকায় নিজে পায়ে হেটে হেটে বিধবা, হত দরিদ্র, এতিম পরিবারগুলোতে ঈদ বস্ত্র বিতরণ করেছেন। নতুন বাজারস্থ হাসু নামক একজন বৃদ্ধা ঈদ বস্ত্র পেয়ে চোঁখের জল আটকে রাখতে পারেনি। এসময় তিনি আল্লাহ’র কাছে তার জন্য দোয়া করে বলেন, আমারে এর আগে কোন ইউএনও সাব বাড়িতে আইসা এইভাবে কাপড় দেয় নাই। আপনারে আল্লাহ বাঁচাইয়া রাখুক।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসময় বিভিন্ন বাড়িতে হত দরিদ্রদের আনন্দের চোখে জল দেখে বলেন, শাড়ি, লুঙ্গি পেয়েছেন। বাসায় কি আগামী কাল আবার আসলে সেমাই চিনি খাওয়াবেন? জবাবে আবারও হত দরিদ্রদের চোখের জল বের হলে তিনি সেমাই চিনি ক্রয় করার জন্যও নগদ অর্থ প্রদান করেন। তারপর বলেন, মা, কাল কিন্তু আপনার এই ছেলে আপনার পরিবারের হাসির মুহুর্তটা দেখতে আরেকবার আসবে। আমাকে তখন সেমাই খাওয়াবেন তো?
কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন এভাবে বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে প্রায় অনেক হত দরিদ্রদের ঈদ বস্ত্র ও নগদ অর্থ প্রদান করে হাসি ফিরিয়েছেন অসহায় হত দরিদ্র পরিবারগুলোতে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।