মুক্তিপণ ছাড়াই রুমায় অপহৃত ৬ গ্রামবাসীকে ছেড়ে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা

বান্দরবানের রুমা উপজেলার সামাখাল এলাকা থেকে অপহৃত ৬ পাহাড়িকে ছেড়ে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। মুক্তিপ্রাপ্তরা হলেন, ফুঅং মারমার ছেলে বাসিং অং মারমা (৩০), পুথোয়াই অং মারমার ছেলে হ্লামং মারমা (৪৯), ক্যাহ্লাউ মারমার ছেলে মংগ্যাই মারমা (৫৮), ঞোথোয়াই মারমার ছেলে চিংথোয়াই মারমা (৫৪), মৃত ক্যামংসি মারমার ছেলে থোয়াই মারমা (৬২) ও প্রু সিং মারমা। তারা সবাই সামাখাল পাড়ার বাসিন্দা।

সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সাড়ে ৪টায় রুমা উপজেলার পলিক পাড়ার নির্জন এলাকায় ওই ৬ পাহাড়িকে কোনো মুক্তিপণ ছাড়াই ছেড়ে দেয় সন্ত্রাসীরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রুমা ২ নম্বর সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শৈমং। তিনি বলেন, ‘শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় ওই সন্ত্রাসীরা সামাখাল গ্রামে প্রবেশ করার কথা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের জানিয়ে দিবে কয়েকজন গ্রামবাসী এমন তথ্যে ক্ষিপ্ত হয় সন্ত্রাসীরা। পরে ওই সন্ত্রাসীরা রোববার দুপুরে গ্রামে প্রবেশ করে ৬ পাহাড়িকে অস্ত্রের মুখে নিয়ে যায়।

মুক্তিপ্রাপ্তদের বরাত দিয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নিরাপত্তাবাহিনীর এক কর্মকর্তা জানান, রোববার দুপুরের দিকে সন্ত্রাসীরা এসে চাল, ডাল, টাকা-পয়সা নিয়ে আসার জন্য কারবারির মাধ্যমে গ্রামবাসীদের বলে। পরে পাড়ার লোকজন এর বিরোধিতা করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ৬ পাহাড়িকে অস্ত্রের মুখে নিয়ে যায়। পরে অপহৃত ব্যক্তিদের উদ্ধারে ওই এলাকায় সেনাটহল জোরদার করা হয়। পরে সেনা সদস্যরা টহলের মুখে সন্ত্রাসীরা পলিকাপাড়া এলাকার একটি নির্জনস্থানে ছেড়ে দিয়ে চলে যায়। বর্তমানে মুক্তিপ্রাপ্তরা তাদের নিজের বাসায় আছেন বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল কাশেম বলেন, ৬ পাহাড়িকে ছেড়ে দেওয়ার বিষয়টি এখনও জানতে পারেনি। তবে আমরা জানার চেষ্টা করছি। ওই জায়গায় কোনো মোবাইল নেটওয়ার্ক নেই।’

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।