মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগেই আজকের বাংলাদেশ : মাটিরাঙ্গার ইউএনও

মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন মাটিরাঙ্গার ইউএনও
বিদ্যুত বিহীন প্রতিটি মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে সোলার প্যানেলের মাধ্যমে বিদ্যুত সরবরাহ নিশ্চিত করার ঘোষনা দিয়ে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বি.এম মশিউর রহমান বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধাদের আত্মত্যাগেই আজকের বাংলাদেশ, আমরা বাংলাদেশের গর্বিত সন্তান। মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণেই বাংলাদেশ ছাড়িয়ে বিশ্বময় উড়ছে লাল-সবুজের পতাকা।

শুক্রবার দুপুরের দিকে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলা পরিষদ মুক্তমঞ্চে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন এ সংবর্ধনার আয়োজন করে।

সংবর্ধনা কমিটির আহবায়ক ও মাটিরাঙ্গা উপজেলা প্রকৌশলী মো: আনোয়ারুল হক এর সভাপতিত্বে খাগড়াছড়ি জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো: রইছ উদ্দিন, মাটিরাঙ্গা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো: মনছুর আলী, মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: সাহাদাত হোসেন টিটো ও মাটিরাঙ্গা পৌরসভার মেয়র মো: শামছুল হক প্রমুখ বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মাটিরাঙ্গায় মুক্তিযুদ্ধকালীন কমান্ডার মো: আলী আশরাফ ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: খলিলুর রহমান প্রমুখ মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন।

মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারন করতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বি.এম মশিউর রহমান বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণেই আজ আমি বড় অফিসার, দেশ স্বাধীন না হলে আমি হয়তো রাষ্ট্রের এতো গুরুত্বপুর্ণ পদে থাকতামনা।

বর্তমান সরকার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য প্রতিটি উপজেলায় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মান করছে উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সবধরনের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হয়েছে। চাকরির ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধাদের নাতি-নাতনি কোটা বৃদ্ধি করে তা বাস্তবায়ন করছে। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে মাটিরাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বি.এম মশিউর রহমানসহ আমন্ত্রিত অতিথিগণ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

অনুষ্ঠানে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যসহ প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তা, শিক্ষক-সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।