যেভাবে চলছে বান্দরবানে লকডাউন : অনেকেই মানছে না স্বাস্থ্যবিধি

করোনা সংক্রমণ রোধে দ্বিতীয় দিনের মতো বান্দরবানে চলছে ঢিলেঢালা ভাবে লকডাউন। লকডাউন চলাকালে বান্দরবান জেলা শহরে ওষুধের দোকান ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান খোলার পাশাপাশি বাজারসহ বিভিন্নস্থানে স্বাভাবিক ভাবে চলাফেরা করতে দেখা গেছে সাধারণ জনসাধারণদের। বিভিন্ন অজুহাত দিয়ে অনেকেই মোটরসাইকেল নিয়ে চলাচল করছে, আবার অনেকই মাস্ক ছাড়াই বিনা প্রয়োজনে করছে ঘোরাফেরা ।

কাঁচাবাজাসহ প্রধান সড়কে প্রতিদিনের মতোই স্বাভাবিকভাবে জনসাধারণ এর লক্ষ্য করা গেছে, এসব জনসাধারণের অনেকেই সামাজিক দূরত্ব এবং স্বাস্থ্যবিধি মানছে না।

বাজার করতে আসা মো.জসিম জানান, এবারে লকডাউনে অনেকের মধ্যে সচেতনতা নেই, মুখে নেই মাস্ক। তিনি আরো জানান, লকডাউনে যেভাবে প্রভাব পড়ার কথা সেভাবে না পরার কারণে অনেকেইে এখনো করোনার প্রভাব সর্ম্পকে বুঝতে পারছে না।

এদিকে গনপরিবহণ বন্ধ থাকায় চট্টগ্রাম, রাঙ্গামাটি ও কক্সবাজারসহ দুরপাল্লার কোন যাত্রীবাহি বাস না ছাড়ায় সাধারণ যাত্রীরা পড়েছে চরম বিড়ম্বনায়। রিক্সা, মোটরসাইকেল ও টেক্সি করে অনেকেই বেশিভাড়া দিয়ে যাচ্ছে গন্তব্যে।

বান্দরবান বাসস্টেশানে আসা যাত্রী মো.কামাল বলেন,পরিবারের জরুরী প্রয়োজনে সাতকানিয়া যেতে হচ্ছে আমায় কিন্তুু বাসস্টেশানে কোন বাস না চলায় বসে আছি।

এদিকে লকডাউন কার্যকর করতে বান্দরবান জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। অভিযান চলাকালে বিভিন্নস্থানে খাওয়ার হোটেল খোলা রেখে খাওয়া, মাস্ক ব্যবহার না করে সড়কে চলাচলসহ বিভিন্ন অপরাধে জনসাধারণকে জরিমানা করছে ভ্রাম্যমান আদালত।

বান্দরবান জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার মো.কায়েসুর রহমান বলেন,লকডাউন কার্যকর করতে জেলা সদরের বিভিন্ন পয়েন্টে প্রশাসনের ৪টি ভ্রাম্যমান আদালতের টিম কাজ করছে এবং যারা সরকারি নির্দেশনা অমান্য করছে তাদের ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন,সরকারের পাশাপাশি জনগণকে আরো সর্তক থাকতে হবে এবং সচেতন হতে হবে তাহলে আমরা করোনার করাল গ্রাস থেকে মুক্ত থাকবো।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।