যে খাবারে মাথাব্যথা হয়

3_56020প্রায় প্রতিদিনই মাথাব্যথায় ভোগেন এমন অনেকেই আছেন। চিকিৎসা পরিভাষায় একে ক্রনিক ডেইলি হেডেক বলে। দু’দিন পরপর এ মাথাব্যথার সমস্যা নিশ্চয়ই সুখকর কোনো বিষয় নয়। কিন্তু আপনি জানেন না- ঠিক কোন কারণে আপনি ভুগছেন এই যন্ত্রণায়! অনেক সময় সাধারণ কিছু ব্যাপার যেমন অতিরিক্ত রোদে ঘোরাঘুরি, গরম, সর্দি-জ্বর, পানিশূন্যতা, অতিরিক্ত শব্দ, মানসিক চাপ ইত্যাদির কারণে মাথাব্যথা হয়ে থাকে।
মারাত্মক ধরনের মাথাব্যথা অনেক সময় শারীরিক অসুস্থতা, মাইগ্রেন এমনকি ব্রেইন টিউমারের লক্ষণ প্রকাশ করে। যদি এগুলোর কোনোটাই মাথাব্যথার কারণ না হয়ে থাকে তাহলে নজর দিন আপনি কী কী খাচ্ছেন সেদিকে। কিছু খাবার খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিলেই দেখবেন প্রতিদিনের এই মাথাব্যথা সমস্যা থেকে সহজেই মুক্তি পেয়ে গিয়েছেন।
আইসক্রিম : আইসক্রিম খেতে কি খুব ভালোবাসেন? মনের কষ্ট মনেই জমা রেখে মাথাব্যথার হাত থেকে মুক্তি পেতে বাদ দিতে হবে আইসক্রিম খাওয়া। আইসক্রিম খাওয়ার পর অনেক সময় কপালের দিকে তীব্র ব্যথা শুরু হয়ে যায়। অনেকেই আছেন আইসক্রিমের ঠাণ্ডা সহ্য করতে পারেন না। যদি দেখেন আইসক্রিম খাওয়ার পর মাথাব্যথা হচ্ছে তাহলে বুঝে নেবেন এটাই বাদ দিতে হবে।
চিজ : চিজ তৈরি করা হয় নানা ধরনের ব্যাকটেরিয়া, মোল্ড ও ইস্টের ফারমেন্টেশনের মাধ্যমে, যা প্রোটিন ভেঙে টায়রামাইন তৈরি করে। এ টায়রামাইন দেহে হাইপারটেনসিভ ক্রাইসিসের জন্য দায়ী যা এক ধরনের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা। এ সমস্যার কারণে অনেক সময় চিজ খাওয়ার ফলে মাথাব্যথার সমস্যায় অনেকেই ভোগেন।
ডার্ক চকলেট : সাধারণ মিল্ক চকলেটের তুলনায় ডার্ক চকলেট স্বাস্থ্যের জন্য অনেক ভালো হলেও যারা মাইগ্রেনের সমস্যায় ভোগেন তাদের জন্য একেবারেই স্বাস্থ্যকর নয় এ সুস্বাদু খাবারটি। ডার্ক চকলেটে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন থাকে যা মাথাব্যথা উদ্রেক করে। টায়রামাইন এবং ফেনিলেথ্যালামাইন এই দুটি মাথাব্যথা উদ্রেককারী উপাদান চকলেটে রয়েছে
কলা : কলা নিঃসন্দেহে পুষ্টিকর সুস্বাদু ফল। এই পুষ্টিকর ফলটিও আপনার মাথাব্যথার কারণ হতে পারে। কলাতে রয়েছে মাথাব্যথা উদ্রেককারী উপাদান টায়রামাইন। কলা খাওয়া একেবারে বাদ দিতে বলছি না। প্রথমে দেখুন কলা কতটা ব্যথা উদ্রেক করে এবং প্রতিদিন না হলেও সপ্তাহে ২-১ দিন কলা খান।
কফি : আপনারা হয়তো শুনে থাকবেন কফি মাথাব্যথা দূর করে। কথাটি সম্পূর্ণ ভুল, বরং কফি পান করলে মাথাব্যথা উলটো বেড়ে যায়। কফি হচ্ছে প্রাকৃতিক ক্যাফেইন যা মাথাব্যথার উদ্রেক করে। কফির সবচেয়ে খারাপ দিক হচ্ছে নিয়মিত কফি পানের পর একদিন বাদ গেলে তীব্র মাথাব্যথা শুরু হয়, একে বলা হয় ‘উইথড্রল ইফেক্ট অফ ক্যাফেইন’। সূত্র: যুগান্তর

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।