রাঙামাটিতে ইউপিডিএফে’র সভা পন্ড করলো জেএসএস

ইউপিডিএফ এর ছিড়ে ফেলে দেয়া ব্যানার- ফেস্টুন
ইউপিডিএফ এর ছিড়ে ফেলে দেয়া ব্যানার- ফেস্টুন
কল্পনা চাকমা অপহরণের ৩৯তম তদন্ত কর্মকর্তার প্রহসনমূলক রিপোর্ট প্রত্যাহারের প্রতিবাদে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এর মানববন্ধন পন্ড করে দিয়েছে জেএসএস। মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় রাঙামাটি জেলা প্রশাসন কার্যালয় সামনে এ ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, কল্পনা চাকমা অপহরণের ৩৯তম তদন্ত কর্মকর্তার প্রহসনমূলক রিপোর্ট প্রত্যাহারের প্রতিবাদে ইউনাইটেড ডেমোক্রেটিক পার্টি (ইউপিপিএফ) সমর্থিত হিল উইমেন্স ফেডরেশন, সাজেক নারী সমাজ, পার্বত্য চট্টগ্রাম নারী সংঘ, ঘিলাছড়ি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি’র যৌথ আয়োজনে এক সমাবেশ পালন করছিল।
সমাবেশ চলাকালীন সময় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) সমর্থিত জেলা যুব সংহতি সমিতির সভাপতি টোয়েন চাকমা ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ ইউপিডিএফ’র এ সমাবেশ পন্ড করে দেয়। এসময় তাদের ব্যানার, ফেস্টুন ছিড়ে ফেলে দেয়া হয়। তাদের ঘটনাস্থল ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য হুমকি দেয়া হয়।
এ বিষয়ে যুব সংহতি সমিতির সভাপতি টোয়েন চাকমা বলেন,স্থানীয় প্রশাসনের অনুমতি না নিয়ে অবৈধ ভাবে এ সমাবেশ করছে। জেএসএস’র কেন্দ্রীয় কমিটির সহ তথ্য ও প্রচার সম্পাদক সজীব চাকমা জানান, এ ঘটনা ইউডিএফের একটি সাজানো নাটক, রাঙামাটি শহরে ইউডিএফের কোন অস্তিত্ব নেই।
ইউপিডিএফ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাইকেল চাকমা জানান, কল্পনা চাকমার অপহরণের তদন্ত কর্মকর্তার প্রহসনমূলক প্রতিবেদনের প্রতিবাদ করার গণতান্ত্রিক অধিকার রাখে অত্র অঞ্চলের পাহাড়ি জনগণ, জেএসএস’র এ ধরণের সমাবেশে হস্তক্ষেপ করা গণতান্ত্রিক নিয়মে পড়ে না। এ ঘটনার জন্য আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।
রাঙামাটির কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ রশিদ জানান, সমাবেশ পন্ড করার ঘটনা সম্পর্কে আমি শুনেছি তবে সমাবেশ করার বিষয়ে কেউ অনুমতি নেয়নি। তিনি বলেন, এ বিষয়ে কেউ এখনো কোন অভিযোগ দায়ের করেনি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।