রাঙামাটিতে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন

রাঙামাটির বনরুপাস্থ একটি রেষ্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন
বৃহত্তর বনরুপা ব্যবসায়ি কল্যাণ সমবায় সমিতি লিমিটেডের অর্থ-সম্পাদকের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন রনজিত ধর। বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় শহরের স্থানীয় একটি রেষ্টুরেন্টে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সমিতির অর্থ-সম্পাদক ও অভিযোগকারি রনজিত ধর।
উপস্থিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে রনজিত ধর বলেন,সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি দীর্ঘ দিন ধরে মৌখিক ভাবে সমিতির হিসাব নিকাশের কাগজ পত্র দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করেন। আমি মৌখিক কথায় হিসাব নিকাশের কাগজ পত্র দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে আমাকে সু কৌশলে সমিতির কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে অতর্কিত ভাবে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে আমি সমিতির কার্যালয় হতে পালিয়ে গিয়ে নিরাপদ স্থানে গিয়ে আশ্রয় নেই।
রনজিত আরো বলেন,হিসাব নিকাশ সংক্রান্ত ব্যাপারে আমি কয়েক দফা সভাপতি ও সম্পাদক বরাবরে লিখিত দরখাস্ত দিয়েছি। কিন্তু এসব দরখাস্তের কোন সুরাহ পাননি। অভিযোগে বলেন, এই সংক্রান্ত ব্যাপারে মিটিং আছে বলে গত ২৮এপ্রিল শুক্রবার সন্ধ্যায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক তাপস দাশ জরুরী মিটিং আছে বলে মোবাইলে একটি এসএমএস পাঠায়। এসএমএস পেয়ে আমি সমিতির অফিসে গেলে তাপস দাশ ও আবু সৈয়দ গং আমাকে মারাতœক ভাবে মারধর করে জখম করলে আমি হাসপাতালে ভর্তি হয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,সমিতির সদস্য নূরুল আজিম খাঁন, মো.আজিম,উত্তম দেবনাথ, রতন দাশ,মাছ ব্যবসায়ি মো.হারুন ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ি চৌধুরী হারুন অর রশীদসহ আরো অনেকে।
এ ব্যাপারে সমিতির সভাপতি আবু সৈয়দ বলেন, রনজিতের সকল অভিযোগ মিথ্যা ভুয়া ভিত্তিহীন, ব্যবসায়ি সমিতির ভাবমূর্তি নষ্ট করার জন্য একটি কুচক্রীমহল এই সব ষড়যন্ত্র করছেন।
কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রশীদ মুঠোফোনে বলেন,গত ২৮এপ্রিল শুক্রবার সন্ধ্যায় বনরুপা ব্যবসায়ি সমিতির সাধারণ সম্পাদক তাপস দাশ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে এবং সমিতির অর্থ-সম্পাদক রণজিত ধর তার জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে গত ২ মে থানায় এসে একটি ডায়েরী করে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।