রাঙামাটিতে পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের ৪৮ ঘন্টা হরতাল প্রত্যাহার

খাগড়াছড়িস্থ মাটিরাঙায় অপহৃত তিন বাঙালী উদ্ধার ও নানিয়ারচর ঘটনায় নিহত বাঙালী গাড়িচালক সজীব হাওলাদার হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার, জেএসএস, ইউপিডিএফসহ পাহাড়ের সকল সশস্ত্র সংগঠন নিষিদ্ধের দাবীতে পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদ এর ডাকে সোমবার সকাল থেকে রাঙামাটিতে ৪৮ ঘন্টার হরতাল শুরু হলেও দুপুর ১২ টার পর থেকে রাঙামাটি শহরের আভ্যন্তরীন সিএনজি অটোরিক্সা ও দুরপাল্লার সকল যানবাহন চলাচল শুরু করে। স্বাভাবিক হতে শুরু করে জনজীবন। সকাল থেকে যানবাহন বন্ধ এবং দোকান পাট বন্ধ ছিল। হরতাল সমর্থনকারীরা শহরের কলেজগেইট ও পিকেটারদের রাস্তায় পিকেটিং করতে দেখা গেছে। প্রশাসনের আশ্বাসে ৪৮ ঘন্টার হরতাল প্রত্যাহার করে নেই আন্দোলনকারীরা।
এদিকে, চট্টগ্রাম রাঙামাটি বাস মালিক সমিতির সভাপতি মঈনউদ্দিন সেলিম বলেন, অহেতুক হরতাল ডেকে যাত্রী সাধারনের কষ্ট হচ্ছে। হরতালকারীদের কাউকে আমরা রাস্তায় দেখনি। হরতালের কারনে আমাদের প্রায় দুই হাজার শ্রমিক বেকার হয়ে পড়েছে। তাই আমরা অটোরিক্সা,লঞ্চ, বাস মালিক-শ্রমিকসহ সকলে বৈঠকে বসে সিদ্ধান্ত নিয়ে নিজ উদ্যেগে গাড়ী ও লঞ্চ চলাচল চালু করে দিয়েছি।
অপরদিকে,পার্বত্য বাঙালী ছাত্র পরিষদের জেলা কমিটির প্রচার সম্পাদক আব্দুল আল মোমিন বলেন, প্রশাসনের আশ্বাসে আমরা বিকাল থেকে ৪৮ ঘন্টার হরতাল প্রত্যাহার করেছি। তিনি বলেন, আমরা সকাল থেকে হরতালের সমর্থনে রাঙামাটির মানিকছড়ি কলেজ গেইট এলাকায় পিকেটিং করেছি।
এদিকে, সকাল থেকে হরতালের কারনে রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের সকল ধরনের যানবাহন বন্ধ ছিল। রাঙামাটি থেকে বিভিন্ন উপজেলার নৌপথের সকল ধরনের লঞ্চ চলাচল বন্ধ ছিলো।হরতালের কারেন সাধারন মানুষের দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
অপরদিকে, হরতালে বিভিন্নধরনের নাশকতা ঠেকাতে শহরে পর্যাপ্ত পরিমান পুলিশী নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Shwe Hla বলেছেন

    হরতাল,প্রতাহার করুন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।