রাঙামাটিতে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা শনাক্তের হার

রেডজোনে থাকা রাঙামাটি জেলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনার শনাক্ত। সর্বশেষ গত রবিবার ২৪ ঘণ্টায় ১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। তার আগের চার দিনের মধ্যে শনিবার ১১ জন, শুক্রবার ৩ জন, বৃহস্পতিবার ৩ জন ও বুধবার ৫ জনের জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছিল। চলতি মাসের প্রথম দিন থেকে শনাক্ত সংখ্যার সঙ্গে শনাক্ত হারও বাড়তে শুরু করেছে। স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব না মানার কারণে সংক্রমণের হার আরো বেড়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

রাঙামাটির সিভিল সার্জন কার্যালয়ের করোনার দৈনিক তথ্য (গত ১২ জানুয়ারি থেকে ১৭ জানুয়ারি) পর্যালোচনা করে এসব তথ্য জানা যায়।

গত রবিবার রাতে প্রকাশ করা সর্বশেষ তথ্য অনুয়ায়ী, আগের ২৪ ঘণ্টায় ৫৩টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের মধ্যে সদরে ৭ জন, কাউখালী ১, কাপ্তাই ৪ ও রাজস্থলীতে তিনজন। শনাক্তের হার ২৮.০৩ শতাংশ। এ নিয়ে রাঙামাটিতে মোট করোনা শনাক্ত হয়েছে ৪ হাজার ৩১৭ জন। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ২৭ হাজার ১০৮টি। পরীক্ষা অনুপাতে শনাক্তের হার ১৫.৯৩ শতাংশ। করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছে ৩৪ জন। এ পর্যন্ত ৩ লক্ষ ৮৪ হাজার ৮৭ জন ১ম ডোজ ও ২ লক্ষ ৯৮ হাজার ৭৯৫ জন ২য় ডোজ টিকা নিয়েছেন।

এদিকে, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক এবং নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনে চলার নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। কিন্তু এর ছিটেফোঁটা রাঙামাটির অধিকাংশ মানুষের মধ্যে নেই। এতে সংক্রমণ বাড়ার আশঙ্কা রয়েছে। স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার স্থানগুলো সবচেয়ে বেশি স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত হচ্ছে। রাঙামাটি মারী স্টেডিয়ামে অস্থায়ী ঠিকাদান কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদের গাদাগাদি করে দাঁড়িয়ে টিকা নিতে দেখা গেছে। প্রশাসনের তৎপরতা থাকলেও মানছে না কেউ। হাট-বাজারে মানুষের উপচেপড়া ভিড়। চলছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কেনাকাটা। ম্যাজিস্ট্রেট দেখলেই সতর্ক হয় এবং মুখে মাস্ক উঠে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।