রাঙামাটিতে শিশুর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় গলা কাটা অবস্থায় শাহ আলম মারুফ (১০) নামের এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ শনিবার সকালে লংগদু উপজেলার কালাপাকুজ্জা ইউনিয়নের একটি জঙ্গল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত শাহ আলম একই উপজেলার মাইনীমুখ ইউনিয়নের রহমাতপুর এলাকার বাসিন্দা মো. বাবু মিয়ার ছেলে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বাঘাইছড়ি উপজেলা থেকে লংগদু উপজেলার মাইনীমুখ ইউনিয়নের রহমাতপুর এলাকায় অর্থাৎ দাদার বাড়িতে বেড়াতে আসে।
একইদিন সন্ধ্যায় দাদার বাড়ি থেকে পাহাড়ি গ্রামে ঘুরতে বের হওয়ার পর নিখোঁজ হয়ে যায়। রাতভর খোঁজাখুজি করেও শিশুটির কোন সন্ধায় পায়নি তার স্বজনরা। পরে শনিবার সকালে লংগদু উপজেলার আরও একটি ইউনিয়ন কালাপাকুজ্জা এলাকার জঙ্গলে শিশুটির গলা কাটা লাশ দেখতে পায় ।
পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় এলাকায় চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।
এ ব্যাপারে লংগদু থানার (ভারপাপ্ত তদন্ত কর্মকর্তা) এস আই মো. ওসমান গনি এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে শিশু মারুফের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছে। শিশুটির সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে।
ধারণা করা হচ্ছে মাইনীমুখ ইউনিয়নের রহমাতপুর এলাকার থেকে কালাপাকুজ্জা ইউনিয়নে নিয়ে দুর্বৃত্তরা শিশুটিকে গলা কেটে হত্যা করেছে। শিশুটির ঘাড় ও কানের অংশে কাটা রয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে,তদন্ত চলছে। মামলাও প্রক্রিয়াধীন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।