রাঙামাটিতে ১২ পুরুষ প্রার্থীর ভিড়ে একমাত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী জন্তিনা চাকমা

চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে আগামী ২৬ ডিসেম্বর রাঙামাটি সদর ও নানিয়ারচরের দশটি ইউনিয়নে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। এরমধ্যে নানিয়ারচর উপজেলার ঘিলাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন জন্তিনা চাকমা নামের এক পাহাড়ী নারী। নানিয়ারচর উপজেলার বাঘা বাঘা ১২ পুরুষ প্রার্থীর ভিড়ে তিনি একমাত্র নারী চেয়ারম্যান প্রার্থী।

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে জন্তিনা চাকমার সাহসিকতা ও আগ্রহ দেখে উপজেলার সর্বত্রই আলোচিত হচ্ছে। জেলায় ১ম তিনধাপে কোন নারী প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে লড়েননি। ৪র্থ ধাপে এসে নানিয়ারচরের ঘিলাছড়ি ইউনিয়নে জন্তিনা চাকমা একমাত্র নারী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। এই ইউনিয়নে জন্তিনা ছাড়াও চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান অমল কান্তি চাকমা ও মিন্টু দেওয়ান নির্বাচন করছেন। এখানে আওয়ামী লীগের কোন প্রার্থী নেই।

তফসিল ঘোষনার পর মোটর সাইকেল প্রতিক নিয়ে জন্তিনা চাকমার প্রচারনা থেমে নেই। মাঝখানে অসুস্থ হয়ে পড়ায় বন্ধ ছিল প্রচারনা। তবে, ডিজিটাল পদ্ধতিতে মানুষের কাছে সুস্থতাসহ ভোট কামনা করে যাচ্ছেন।

জয়ের ব্যাপারে আশাবাদি জন্তিনা চাকমা বলেন, নির্বাচিত হলে আমার মূল লক্ষ্য হবে নারী অধিকার নিশ্চিত করা। বাল্যবিবাহ, নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ করা। ইউনিয়নের পিছিয়ে পড়া ও পশ্চাৎপদ জনগোষ্ঠীর আর্থসামাজিক উন্নয়ন, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, যোগাযোগসহ মানুষের মৌলিক অধিকার বাস্তবায়নে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কাজ কাজ করব।

জন্তিনা চাকমা পেশায় একজন কৃষি খামারি। পড়ালেখা করেছেন এইচএসসি পর্যন্ত। ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদ উপ নির্বাচনে তিনি চেয়ারম্যান প্রার্থী হলেও জিততে পারেননি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।