রাঙামাটিতে ৩ হাজার ৬ শত পরিবারকে ১০ টাকা কেজি চাউল বিক্রি

করোনায় কর্মহীন মানুষদের জন্য আজ রোববার (৫ এপ্রিল) থেকে এই প্রথম রাঙামাটির পৌর এলাকায় ৯টি ওয়ার্ডে ১০ টাকা কেজি দরে খোলা বাজারে (ওএমএস) চাল বিক্রি শুরু হয়েছে। সপ্তাহে পরিবার প্রতি ৫ কেজি চাল ক্রয় করতে পারবেন। রবি, মঙ্গল ও বৃহস্পৃতিবার এসব চাল বিতরণ করা হবে। (সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত)।

প্রতিদিন ১টি ওয়ার্ডে ৪ শত পরিবারকে ২টন (২হাজার কেজি) করে ৯টি ওয়ার্ডে সর্বমোট ৩ হাজার ৬০০ পরিবারকে ১৮টন (১৮ হাজার কেজি) করে এ ১০টাকা কেজির চাউল বিতরণ করা হবে।

পৌর এলাকার যেকোন ওয়ার্ডের নাগরিক আইডি কার্ড প্রদর্শন করে ১০টাকা কেজি করে প্রতিজন ৫কেজি করে এ চাউল নিতে পারবে বলে জানিয়েছেন, চাউলের ডিস্ট্রিবিউটর মোঃ আবু তৈয়ব।

চাউল নিতে সকাল থেকেই নিম্ন, মধ্যবৃত্ত ও উচ্চবৃত্ত পরিবারদের ভীড় দেখা যায় কিন্তু মানা হচ্ছে না সামাজিক দূরত্ব। তবে ১০টাকা কেজি চাউল পেয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছে চাউল নিতে আসা সাধারণ মানুষ।

যেসব স্থানে দেওয়া হবে ১০ টাকার চাল:
১ নম্বর ওয়ার্ডের গীতাশ্রম মন্দির ও রিজার্ভ বাজার, ২ নম্বর ওয়ার্ডের শহীদ আব্দুল আলী একাডেমি ও রিজার্ভ বাজার, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ইয়ুথ ক্লাব ও তবলছড়ি, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের রাঙামাটি পাবলিক কলেজ ও তবলছড়ি, ৫ নম্বর ওয়ার্ডের মাশরুম ট্রেনিং সেন্টার ও আসামবস্তি, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সড়ক ও জনপথ কারখানা বিভাগ, ভেদভেদী, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাঠালতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের রানী দয়াময়ী উচ্চ বিদ্যালয় ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণ।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।