রাঙামাটির রাজবন বিহারে শেষ হলো বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ কঠিন চীবরদানোৎসব

বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে এক বছর বন্ধ থাকার পর রাঙামাটির রাজবনবিহারে অনুষ্ঠিত হয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রামের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় অনুষ্ঠান ৪৮তম কঠিন চীবরদানোৎসব। পার্বত্য চট্টগ্রামের সর্ববৃহৎ এ কঠিন চীবরদান উৎসব বৃহষ্পতিবার শুরু হয়ে আজ শুক্রবার বিকালে চীবর উৎসর্গের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। এবারের কঠিন চীবর দানোৎসবের আহবান ছিল পৃথিবীর সকল মানুষ যেন করোনা মহামারীসহ যে কোন রোগ থেকে মুক্তি লাভ করে।

এ উপলক্ষে আজ শুক্রবার দুপুরে রাজবন বিহার প্রাঙ্গনে হাজার হাজার পূণ্যার্থী সমবেত হয়। সমাবেশের উদ্দেশ্যে ধর্মীয় দেশনা দেন বৌদ্ধ ভিক্ষুরা।

রাজবন বিহার উপাসক উপাসিকা পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, রাঙামাটি জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অংশুই প্রু চৌধুরী, বিহার উপাসক উপাসিকা পরিষদের সভাপতি গৌতম দেওয়ান, সাবেক উপমন্ত্রী মণিস্বপণ দেওয়ান সহ জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বৌদ্ধ ভিক্ষুর ধর্মীয় দেশনা শেষে একে একে পূণ্যার্থীরা বনভান্তের উদ্দেশ্যে চীবর উৎসর্গ করেন। এর মধ্য দিয়ে শেষ হয় পার্বত্য চট্টগ্রামের মাসব্যাপী কঠিন চীবর উৎসবের সর্বশেষ ও সর্ববৃহৎ আয়োজন। আয়োজক কমিটি জানায় এবারে উৎসবে লক্ষাধিক মানুষের সমাগম হয়। এতে যোগ দেয় দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের বৌদ্ধ ধর্মামবলম্বীসহ অন্যান্য ধর্মের মানুষ। উৎসবকে ঘিরে রাজবন বিহার ও আশেপাশের এলাকায় বসেছে মেলা।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।