রাঙ্গামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৫ জন

রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় শসস্ত্র সন্ত্রাসীদের হামলায় নির্বাচনী কর্মকর্তাসহ ৫জন নিহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বাঘাইছড়ি সদর উপজেলার প্রধান সড়কে তারা হামলা চালায়। নিহতদের মধ্যে চারজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- ভিডিপি সদস্য মোঃ আল আমিন, বিলকিস, মিহির কান্তি দত্ত ও স্কুল শিক্ষক আমির হোসেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আজ সোমবার সন্ধ্যায় নির্বাচনের ভোট গ্রহনের পর রাঙ্গামাটিতে চাঁদের গাড়িতে করে ফিরে আসার সময় রাস্তায় নির্বাচনী কর্মকর্তাসহ মোট পাঁচ জনকে গুলি করে হত্যা করে শসস্ত্র সন্ত্রাসীরা। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত নিহতদের সঠিক সংখ্যা জানা সম্ভব হয়নি দায়িত্বশীল সরকারী সূত্র থেকে ।
রাঙামাটি জেলা পুলিশের সুপারিনটেনডেন্ট মো : আলমগীর কবীর বলেন, মৃত্যুর সংখ্যা আরো বেড়ে যেতে পারে।
আরো জানা গেছে, কর্মকর্তারা সাজেক ইউনিয়নের কংলকপাড়া উপজেলার ভোট কেন্দ্র থেকে ফিরে আসছিলেন। সোমবার সন্ধ্যায় বাঘাইছড়ি সদর উপজেলার প্রধান সড়কে তাদের ওপর হামলা করা হয়। পঞ্চম উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে বঙ্গাইছড়ি, নানিচর ও কোখালী উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে পার্বত্য জেলা রাঙ্গামাটির ১০ উপজেলায় ভোটগ্রহণ শেষ হয়। কড়া নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে সকাল থেকে রাঙ্গামাটি জেলার ২০৮টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শেষ করে দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তারা। এর আগে জালভোট ও কারচুপির অভিযোগ এনে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি, নানিয়ারচর ও কাউখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র ছয় চেয়ারম্যান ও চার ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ভোট বর্জন করেছেন।
রাঙ্গামাটি জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক এসএম শফিম কামাল বলেন, সাজেক রাস্তার মাধ্যমে বাঘাইছড়ি উপজেলায় যাবার সময় তারা এই হামলা চালায়।
উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে ১৫ জেলার ১১৬ উপজেলায় ভোট আজ। এসব উপজেলার ৭ হাজার ৩৯টি কেন্দ্রে সকাল ৮টায় ভোট শুরু হয়ে চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এসব নির্বাচনী এলাকায় ভোটার রয়েছেন মোট এক কোটি ৭৯ লাখ ৯ হাজার ৬ জন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।