রাজধানীতে সবুজ পাহাড়ের ছোঁয়া “পার্বত্য মেলা”

পাহাড়ের ঐতিহ্যবাহী পণ্য এবং পাহাড়ি ফল নিয়ে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় শুরু হয়েছে পার্বত্য মেলা। আর এসবের সঙ্গে রয়েছে পাহাড়ি সংস্কৃতির নৃত্যগীতের আয়োজন। পাহাড়ের বৈচিত্রময় জীবনগাঁথা দেখতে হলে আপনাকে আসতেই হবে পার্বত্য মেলায়।

গতকাল বৃহস্পতিবার (৫ডিসেম্বর) বিকালে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমি মাঠে শুরু হয়েছে চার দিনের এ মেলা। পার্বত্য এলাকার মানুষের জীবন-সংস্কৃতি, পোশাক-পরিচ্ছদ, ইতিহাস-ঐতিহ্যের সঙ্গে সমতলের মানুষদের পরিচয় করিয়ে দিতে এই আয়োজন করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

পার্বত্য মেলার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী। পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং-এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মো. মেসবাহুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গামাটির সংসদ সদস্য দীপংকর তালুকদার, খাগড়াছড়ির সংসদ সদস্য কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য বাসন্তী চাকমা ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা।

প্রধান অতিথি হিসেবে বৃহস্পতিবার বিকেলে মেলার উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী। উদ্বোধনী বক্তব্যে তিনি বলেন, আগের চেয়ে অনেক উন্নত হয়েছে দেশের পার্বত্য অঞ্চল। সেখানকার মানুষেরা আগের চেয়ে বেশি উন্নয়নের সুফল ভোগ করছেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতি বক্তব্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেন,পার্বত্য মেলা পাহাড়ী ও সমতলের বাঙালীদের সমন্বয়ে সংস্কৃতির মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে। একটা সময় ছিল পার্বত্য অঞ্চলের মানুষের পূর্ণিমার চাঁদ দেখতে পারত না। বিকেলের পর ঘর থেকে বের হতে পারত না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে সেই পার্বত্য এলাকায় এখন শান্তি বিরাজ করছে।

পার্বত্য মেলায় স্থান পাওয়া ১০০টি স্টলে রয়েছে পাহাড়ের নানা তরতাজা ফলফলাদি, খাবার ও পোশাক। রয়েছে পাহাড়ি আনারস, তরমুজ, সূর্যমুখি কলা, অগ্নিস্বর কলা, ড্রাগন ফল, তেঁতুল, কাঁঠাল। আছে পাহাড়ি কাঁচা হলুদ, কফি, লাল, কালো ও সাদা বিনি চাল। পাহাড়ি আখ ও সেই আখের তৈরি গুড়, ডায়াবেটিস প্রতিরোধক বিশেষ চা। সবজির মধ্যে আছে পাহাড়ি পাকা হলুদ বেগুন, পাহাড়ি আলু, ফরাশ সিম, কুমড়ো, সজনে ডাটা, কলার মোচা, পাহাড়ি মুলাসহ নানা সবজি। পাহাড়ের মানুষদের তৈরি কলাপাতায় মোড়ানো বিন্নি ধানের তৈরি ‘বিনি হোগা’ নামের বিশেষ এক ধরনের পিঠা, কাঁকড়া ফ্রাইসহ আছে হরেক রকমের খাবার।

পোশাকের মধ্যে লুঙ্গি-গামছা থেকে শুরু করে বিছানা ও গায়ের চাদর, ফতুয়া, খামির বাহার রয়েছে। অলঙ্কারের মধ্যে রয়েছে হাঁসুলি, ঝুমকা, চোকার, নানা ধরনের মালা, ব্রেসলেট, বিভিন্ন ধরনের ব্যাগসহ পাহাড়ি নানা ঝুড়ি। বাঁশ ও বেতের তৈরি সুদৃশ্য সব চেয়ার থেকে নান্দনিকতায় ভরা ফুলদানিও আছে। এসবের পাশাপাশি পাহাড়ি মানুষদের উষ্ণ অভ্যর্থনাতো আছেই। পার্বত্য জেলায় আগত অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে বিলবোর্ড প্রদানের পাশাপাশি অনুষ্ঠানটি লাইভ সম্প্রচার করে পাহাড়ের জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল “পাহাড়বার্তা”

আগামী রবিবার পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে এ মেলা। প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত পার্বত্য চট্টগ্রামের নানা ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর শিল্পীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনাও থাকছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।