রামগড়ে ৭৭ গৃহহীন পরিবারের হাতে ঘরের চাবি

খাগড়াছড়ির রামগড়ে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার নতুন ঘর ও ২ শতক জায়গা পেয়ে খুশি ৭৭টি ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। ঈদের আগে আশ্রয়ন প্রকল্প-২ আওতায় ৩য় পর্যায়ের ১ম ধাপে উপজেলার দুইটি ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রাম ও পৌরসভার ৭৭টি পরিবার এ ঘর ও জমি পেয়েছেন।

আজ মঙ্গলবার ২৬শে এপ্রিল গন ভবন থেকে ভার্চয়ালী উপস্থিত থেকে ভুমিহীন ও গৃহহীন এসব ঘর ও ভুমির দলিল হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকাল ১১টায় রামগড় উপজেলা সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত ভূমিহীন ও গৃহহীনদের দলিল হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু।

উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা খোন্দকার মোঃ ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত জানান, এটি একটি অনন্য দৃষ্টান্ত। ঈদের আগে প্রধানমন্ত্রীর উপহার সেমিপাকা ঘর ও জমি, ভূমিহীন-গৃহহীনদের ঈদ আনন্দে বাড়তি মাত্রা যুক্ত করবে। সারাদেশে নির্মিতব্য ৬৪ হাজার ৪০৪টি গৃহের মধ্যে ৩২ হাজার ৯০৪টি গৃহহীন পরিবার পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নজরুল ইসলাম জানান, রামগড়ে হস্তান্তরিত ৭৭টি ঘরের মধ্যে রামগড় পৌরসভায় ২৩টি, ১ নম্বর রামগড় ইউপিতে ৩২টি এবং ২ নম্বর পাতাছড়া ইউপিতে ২২টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতিটি ঘর নির্মাণে ২ লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ ব্যয়সহ ২ শতক জমি প্রদান করা হচ্ছে যার আনুমানিক মূল্য ৫ লাখ টাকা। এর আগে ১ম ও ২য় পর্যায়ে ১৯৩টি গৃহ ও জমি প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে রামগড় উপজেলা চেয়ারম্যান বিশ্ব প্রদীপ কুমার কারবারী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খোন্দকার মো.ইখতিয়ার উদ্দীন আরাফাত, সহকারী কমিশনার (ভূমি) উম্মে হাবিবা মজুমদার, রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শামসুজ্জামান, উপজেলা আ.লীগ সভাপতি মোস্তফা হোসেন,১নং ইউ পি চেয়ারম্যান শাহ আলম মজুমদার, ২নং পাতাছড়া ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কাজী নুরুল আলম আলমগীর, সরকারী কর্মকর্তা, বীর মুক্তিযোদ্ধা, জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, শিক্ষক, সাংবাদিক সহ উপকারভোগীরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।