রামগড়ে আগুনে পুড়ল বিধবার ঘর

রান্না ঘরের চুলায় তরকারি বসিয়ে নাতি ও নাতবৌয়ের ঝগড়া থামাতে গিয়ে চুলার আগুনে পুড়ে ছাঁই হয়ে গেল খাগড়াছড়ি জেলার রামগড়ের মধ্যম বলিপাড়ার হতদরিদ্র বিধবা মজুবা খাতুনের(৭৫) ঘরটি। মাথা গোঁজার ঠাঁই একমাত্র ঘরটি ভস্মীভূত হওয়ায় অসহায় এ বিধবা বৃদ্ধা এখন দিশেহারা। আজ রবিবার (৯ মে) দুপুরে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, রবিবার দুপুর ১২ টার দিকে উপজেলার ১নং রামগড় ইউনিয়নের মধ্যম বলিপাড়া গ্রামের বাসিন্দা মৃত নাদু মিয়া খলিফার স্ত্রী হতদরিদ্র মাজুবা খাতুনের নি রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে মাটির ঘরটি পুড়ে যায়। এ সময় ঘরের আসবাবপত্রসহ সব জিনিসপত্র পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়। চুলায় তরকারি রান্নায় বসিয়ে মজুবা পাশ্বর্বর্তী নাতির বাসায় স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া থামাতে যান। এ সময় আগুনের লেলিহান শিখায় পুড়ে ছাঁই হয়ে যায় থাকার ঘর, মালামালসহ সর্বস্ব। খবর পেয়ে রামগড় ফায়ার সার্ভিসের দমকলকর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌছার আগেই সব কিছু ভস্মীভূত হয়ে যায়।

৭নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার মোঃ রিপন জানান, আগুনে অসহায় বিধবা মজুবার জমানো নগদ ৩০ হাজার টাকাও পুড়ে গেছে। তিনি বলেন, রান্না ঘরের চুলা থেকে আগুনের সূত্র হয়ে অল্প সময়ের মধ্যে থাকার ঘরে ছড়িয়ে যায়। এ সময় ঘরে ছিল না। মাথা গোঁজার ঠাঁই ঘরটিসহ সর্বস্ব হারিয়ে এ অসহায় বৃদ্ধা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

রামগড় থানার এস আই মোঃ তারেক বলেন, খবর পেয়েই ফায়ার সার্ভিসের কর্মী ও পুলিশ ঘটনাস্থলে যান কিন্তু তারা পৌঁছার আগেই ঘরটি পুড়ে যায়। নগদ ৩০ হাজার টাকাসহ প্রায় এক লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে, অগ্নিকান্ডে গৃহহীন হয়ে পড়া অসহায় বিধবা বৃদ্ধা মজুবা খাতুনকে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ গৃহ নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় জরুরি ভিত্তিতে ঘর নির্মাণের জন্য উপজেলা প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহল।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।