রামগড়ে বিএডিসির জায়গা দখলের চেষ্টা

খাগড়াছড়ির রামগড় পৌর সভার উপকন্ঠে অবস্থিত বিএডিসির (সার) সরকারি জায়গা দখলের জন্য ইটের দেওয়াল নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। পৌর সভার প্রাণ কেন্দ্রে এভাবে সরকারি জায়গা দখলের অপচেষ্টার ঘটনায় পুরো এলাকায় বিরুপ প্রতিক্রিয়ার সৃস্টি হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, রামগড় বিদ্যুৎ বিভাগ ও প্রেসক্লাব সংলগ্নে খাগড়াছড়ি সড়কের পাশে অবস্থিত বিএডিসির (সার) পরিত্যক্ত গুদামের সীমানার ভিতরে জায়গা দখলের উদ্দেশ্যে ইটের দেওয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করে জনৈক ব্যক্তি।

গত শনিবার সকালে কাজ শুরুর পর খবর পেয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগের সহকারি পরিচালক মো: নুরুল আফছার রাঙ্গামাটি থেকে এসে পুলিশের সহায়তায় কাজ বন্ধ করে দেন। মহকুমা থাকাকালীন পাকিস্তান আমলে এখানে বিএডিসির সারের গুদাম ও অফিস ভবন নির্মিত হয়। নব্বইর দশকে উপজেলা পর্যায়ে কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়ার পর বিশাল আকারের গুদাম ও অফিসসহ স্থাপনাগুলো পরিত্যক্ত হয়ে পড়ে। এ সুযোগে অসাধু ব্যক্তিরা উচ্চ মূল্যের সরকারি এ জায়গা জবর দখলের চেস্টায় লিপ্ত হয়।

বিএডিসির (সার) রাঙ্গামাটির সহকারি পরিচালক মো: নুরুল আফছার বলেন, পরি‌ত্যক্ত গুদামের পশ্চিম পাশে জনৈক ব্যক্তি সরকারি ভূ সম্পদ দখলের উদ্দেশ্যে ইটের পাকা দেওয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করে। গুদামের সীমানা পিলারের অভ্যন্তরে জায়গা দখলের চেস্টার খবর পেয়ে তিনি শনিবার রামগড়ে এসে পুলিশের সহায়তায় কাজ বন্ধ করে দেন।

তিনি আরও জানান, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও উপজেলা চেয়ারম্যানকে বিষয়টি মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে। এ ব্যাপারে খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মহোদয়কেও লিখিতভাবে অবহিত করা হবে।

রামগড় থানার ওসি মোহাম্মদ সামছুজ্জামান বলেন, সংংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তার কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে সরকারি সম্পদ রক্ষার জন্য পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দেওয়াল নির্মাণের কাজ বন্ধ করে দেয়। তিনি আরও বলেন, আবু মিয়া নামে জনৈক ব্যক্তি জায়গাটি তার বলে দাবি করছে। এ কারণে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, এসি ল্যান্ডসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে বিএডিসির সরকারি জায়গা পরিমাপ করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এদিকে, প্রাচীন এ সরকারি বিভাগের সীমানার অভ্যন্তরে সাধারণের জায়গা থাকার দাবির গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্নের উদ্রেক হয়েছে সচেতন মহলে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।