রামগড়ে বিয়ের ১ বছর না যেতেই স্বামীর হাতে স্ত্রীর খুন

বিয়ের এক বছর পূর্ণ না হতেই স্বামীর নিষ্ঠুর নির্যাতনের শিকার হয়ে খাগড়াছড়ির রামগড়ে আকলিমা আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর বরণ করেন।

আজ শনিবার (১২ ডিসেম্বর) দুপুর ১টার দিকে রামগড় সরকারি হাসপাতালে মারা যায় আকলিমা। নিহত আকলিমা মানিকছড়ি উপজেলার কালাপানি গ‍্যাসফিল এলাকার মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন’র ২য় মেয়ে।

নিহতের বড় ভাই মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, ২০১৯ সালের শেষের দিকে ফটিকছড়ি উপজেলার ভুজপুর থানার বাগান বাজার ইউনিয়ন’র লালমাই গ্রামের মরহুম আব্দুল লতিফের ছেলে আমজাদ হোসেন (২৫) সাথে আকলিমার বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে নানা অযুহাতে আমজাদ নির্যাতন করতো বলে বোন আমাদেরকে একাধিকবার জানিয়েছিল,সে মাদকাসক্ত ছিল। তার চাহিদা অনুযায়ী টাকা পয়সাও দিয়ে আসছে আমাদের পরিবার। টাকা পয়সা দিলে কিছুদিন নির্যাতন বন্ধ থাকতো। এভাবে আকলিমাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের পরও তাকে ধর্য্য ধরে সংসার করার জন্য পরামর্শ দিতাম।

গত বুধবার (৯ ডিসেম্ববর) নেশাবস্থায় আমজাদ এবং তার মা আকলিমাকে মারধর করে। তারপর জোরপূর্বক মুখে বিষ ঠেলে দিয়ে নিজে আত্মহত্যা করেছে বলে আমাদের ফোন দিয়ে জানায়। সে সময় আমার বোনের আত্মচিৎকারের আওয়াজ ফোনে শুনতে পাই। নির্যাতনের এক পর্যায়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেললে সবাই পালিয়ে যায়। পরে প্রতিবেশি ও আমজাদের বড় ভাই সাদ্দাম রামগড় সরকারি হাসপাতালে নিয়ে এসে ভর্তি করে চলে যান। পরে শারীরিক যন্ত্রণা নিয়ে ৪ দিন পর আজ দুপুরে মারা যান আকলিমা। আমজাদ বর্তমানে পলাতক রয়েছেন।

ভুজপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করার প্রক্রিয়া নিচ্ছে বলেও জানান তিনি ।

রামগড় থানার এসআই আনোয়ার হোসেন জানান, পারিবারিক সমস্যার কারণে মৃত্যুর ঘটনাটি ঘটতে পারে। এ বিষয়ে নিহতের পরিবারের লোকজন ভূজপুর থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।