রামগড়ে রির্টানিং অফিসারসহ ১৬জনের বিরুদ্ধে ইভিএম কারচুপি অভিযোগ এনে মামলা

পৌর নির্বাচন

খাগড়াছড়ির রামগড় পৌর নির্বাচনে ইভিএম এ কারচুপির অভিযোগ তুলে ফলাফল বাতিল ও গেজেট স্থগিত চেয়ে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে সাত বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থী আদালতে মামলা দায়ের করেছেন।

গত সোমবার (৮ নভেম্বর) বিকেলে খাগড়াছড়ির যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মাহমুদুল ইসলামের আদালতে রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ সাইদুর রহমানসহ ১৬ জনকে অভিযুক্ত করে পরাজিত ৭ কাউন্সিলর প্রার্থী মামলা দায়ের করেন। মামলায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশন সচিব ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিবকেও এ মামলায় মোকাবেলা বিবাদী করা হয়েছে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, রামগড় পৌরসভার ১, ২, ৪, ৫, ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডে ইভিএম দিয়ে কারচুপি করায় মাস্টার কার্ড তলব, কেন্দ্র ভিত্তিক ফলাফল ঘোষণা না করে বিধি ভঙ্গ করায় ফলাফল বাতিল ও পরবর্তী গেজেট প্রকাশ স্থগিতের আবেদন করা হয়।

মামলার বাদীরা হলেন, রামগড় পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল আলম, ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. বাদশা মিয়া, ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আনোয়ার তারেক সুমন, ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মোশাররফ হোসেন, ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী নজির আহম্মেদ, ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. সাহাব উদ্দিন ও ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. আবছার।

মামলার এজহারে বাদীরা অভিযোগ করেছেন, গত ২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত রামগড় পৌরসভা নির্বাচনে তারা নির্বাচিত হয়েছিলেন। কিন্তু ভোট গণনার সময় নানা ছলচাতুরীর মাধ্যমে তাদের পরাজিত দেখিয়েছে নির্বাচনে দায়ীত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।