রুমার একমাত্র মন্দিরে শারদীয়া দুর্গোৎসব

navratri-photoশারদীয়া দুর্গোৎসব উপলক্ষে রুমা উপজেলার একমাত্র মন্দির রুমা বাজার সংলগ্ন ‘শ্রীশ্রী রুমা হরি মন্দির’এ উদযাপন করা হচ্ছে সার্বজনীন শারদীয়া দুর্গোৎসব। গত শনিবার সপ্তমী পূজায় নানা আচার অনুষ্ঠান ও অনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে শুরু হয় এই শারদীয়া দুর্গোৎসব। এখন হরি মন্দির পূঁজা মন্ডপে নারী-পুরুষ ভীড় জমায়। এ পূজা মন্ডপটি শুধু সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ভীড় নয়, পাহাড়ি নারীরাও মন্ডপে ভীড় জমিয়েছে।
মায়ের উদ্দেশ্যে ভক্তরা মোমবাতিসহ ধূপ কাঠি জালিয়ে সুখ শান্তি কামনা করছেন। এছাড়াও শনিবার গভীর রাত পর্যন্ত দেবীর অর্দ্ধরাতে বিহিত পূজার মধ্য দিয়ে বিভিন্ন স্থান থেকে আগত শিল্পী ও স্থানীয় শিল্পীরা ধর্মীয় গান পরিবেশন করা হয়। এছাড়াও রোববার-সোমবারেও অষ্টমী ও নবমীতে নানা কর্মসূচি রয়েছে। আগামী মঙ্গলবার বিকালে মা দুর্গাদেবীর বিসর্জনের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি সনাতন ধর্মাবলম্বীদের দুর্গোৎসব।
এদিকে শারদীয়া দুর্গোৎসব উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি সুধীর দাশ জানান, সনাতন সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয়া দুর্গোৎসব, এ উৎসবটি সার্বজনীন। নানা কর্মসূচি গ্রহণের মধ্য দিয়ে সম্পাদন করতে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান আর্থিক অনুদান দিয়েছেন। তার মধ্যে পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী ৩০ হাজার, জেলা পরিষদ ১৭হাজার, রুমা সেনা জোন ২০হাজার, উপজেলা চেয়ারম্যান ২০হাজার, উপজেলা পরিষদ ১৫হাজার, সদর ইউপি এক মেট্রিক টন ও জেলা প্রশাসন তিন হাজার ৪০০টাকা। তিন লক্ষ টাকা প্রস্তাবিত বাজেট পূরণে বাদবাকী সবটাকা উদযাপন পরিষদের উদ্যোগে বিভিন্ন সংগ্রহ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।