রুমায় চান্দা পাড়ায় মৈত্রী পানি বর্ষনের বর্নাঢ্য আয়োজন

রুমার চান্দা পাড়ায় মৈত্রী পানি বর্ষনের উদ্ভোধন করছেন অতিথিরা
আনন্দঘন পরিবেশে বান্দরবানের রুমায় পাইন্দু ইউনিয়নের এক বর্নাঢ্য আয়োজনে চান্দা হেডম্যান পাড়ায় মৈত্রী পানি বর্ষন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বিকাল তিনটায় বৌদ্ধ বিহার প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিখি ছিলেন নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান উহ্লাচিং মারমা।
বাংলা নবষবর্ষ মারমাদের সাংগ্রাই পোয়ে এর মাধ্যমে নতুন বছর সুচনা। এই দিন থেকে সকলের মধ্যে থেকে খারাপ রাশি বা পাপ মোচনের বিশ্বাসে এ মৈত্রী পানি বর্ষন বা মৈত্তা রিলং পোয়ে। এ অনুষ্ঠান সুষ্ঠভাবে উদযাপনের জন্য তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নগদ পাঁচ হাজার টাকা অনুদান দেন।
এসময় সাংগ্রাইং পোয়ে উদযাপন কমিটি সভাপতি অংবাসিং মারমা সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ও অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নব নির্বাচিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নুম্রা উ মারমা, রুমা প্রেস ক্লাবের সভাপতি শৈহ্লা চিং মারমা, পাইন্দু ইউপি চেয়ারম্যান উহ্লামং মারমা, চান্দা মৌজা হেডম্যান সামং উ মারমা, পাইন্দু ইউপি আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইলুকথাং বমসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। পরে বিভিন্ন পাড়ার যুবাদের অংশ গ্রহনে মৈত্রী পানি বর্ষন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে দুপুরে উপস্থিত অতিথি ও আগত মৈত্রী পানি বর্ষন অনুষ্ঠান দর্শনাথীদের সাঙগ্রাইং পোয়ে-১৩ ৮১মঘাব্দ উপলক্ষে হরেক রকমে বিশেষ খাবার পরিবেশন করা হয়।
গতকাল সোমবার বিকেল সাড়ে তিনটায় রুমা সদর ইউনিয়নের বটতলি পাড়া বৌদ্ধ বিহার প্রাঙ্গনে মৈত্রী পানি বর্ষন অনুষ্ঠিত হয়। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশে উপজেলার বিভিন্ন পাড়া থেকে রং বেরঙে পোষাক পরিধানে যুবারা দলে দলে, নেচে-গেয়ে একে অপরের গায়ে মেত্রী পানি বর্ষনে অংশ নেয়। এসময় শিশু, কিশোর ও যুবারা পৃথক পৃথক গান গেয়ে নৃত্য পরিবেশন করে।
আর নয় মাদক, এবারের মোদের এ উৎসব, এ শ্লোগানকে সামনে রেখে মাহা সাংগ্রাইং পোয়ে উপলক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে মৈত্রী পানি বর্ষন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রুমা সদর ইউপি চেয়ারম্যান শৈমং মারমা। বিশেষ অতিথি ও অন্যান্যের মধ্যে বিএনপি নেতা ও সাবেক মেম্বার মেমং মারমা, কারতিানের উপজেলা সমন্বয়কারি রিপন চাকমা ও সাবেক মেম্বার মেমং মারমামহ সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
বটতলি পাড়া সংগ্রাইং পোয়ে উদযাপন কমিটি আহবায়ক ক্যনু মারমা বলেন,বিশেষ করে যুবাদের ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় আনন্দের উপভোগ বজায় রাখতে আগামীতেও সবার সহযোগিতায় আয়োজন করা হবে। আগের যে কোনো উপভোগ্য অনুষ্ঠানের অপেক্ষায় এবারে লোকজনের সমাগম সবচেয়ে লক্ষণীয় বলেন মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।
এদিকে সোমবার বিকেল ৪টায় পাইন্দু ইউনিয়নের পাইন্দু হেডম্যান পাড়া ও রুমা সদর ইউনিয়নের ময়ুর পাড়ায় অনুষ্ঠিত হয় মৈত্রী পানি বর্ষন। আগামিকাল বুধবার (১৭এপ্রিল) বিকেল তিনটায় রুমা বাজার সংলগ্ন সাংগু নদীর বালুচড়ে অনুষ্ঠিত হবে কেন্দ্রীয় উৎসব উদযাপণ কমিটির আয়োজনে সমাপণি মৈত্রী পানিবর্ষন ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে রুমা জোন কমান্ডার লে: কর্ণেল মোহাম্মদ শাহ নেওংয়াজ পিএসসি।
সন্ধ্যায় বান্দরবান জেলা সদর থেকে মারমা শিল্পী গোষ্ঠীর অন্যতম সংগঠক চখোয়াই প্রু ও তার সংগঠনের দৃষ্টি কাড়া নন্দিত নৃত্য শিল্পী ও কন্ঠ শিল্পীরা। আরো গান পরিবেশন করবেন স্থানীয় শিল্পীরাও।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।