রুমায় ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেপ্তার

মোবাইলে ধারণ করলেন ভিডিও

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় রুমা জুনিয়র হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষককে ধর্ষণ ও মোবাইল ফোনে নগ্ন ভিডিও ধারণের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার রাতে রুমা বাজার এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এই শিক্ষকের নাম সমর কান্তি দত্ত (৫৬)। তাঁর বাড়ি চট্টগ্রাম জেলার লোহাগাড়া উপজেলায়।

ভিক্টিমের অভিযোগ, ধর্ষণের শিকার হওয়া ছাত্রী ২০১৯ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়। এরপর সে এই শিক্ষকের বাড়িতে গিয়ে প্রাইভেট পড়া শুরু করে। প্রাইভেট পড়ানোর সময় তাকেসহ অন্যান্য ছাত্রীদের বিভিন্ন ভাবে উত্যক্ত ও যৌন হয়রানি করে আসছিল। গত বৃহস্পতিবার (২৩ আগষ্ট) প্রাইভেট পড়ানো শেষে অন্যান্য ছাত্রীকে ছেড়ে দিলেও এই শিক্ষক ভিক্টিম ছাত্রীকে কাজ আছে বলে অপেক্ষা করতে বলে। আর সবাই চলে গেলে তাকে ধর্ষণ করে এবং মোবাইলে ভিডিও ধারণ করে। পরবর্তীতে ধর্ষিতার মোবাইলে ধারণকৃত ভিডিও এই ছাত্রীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের মেসেঞ্জারে পাঠিয়ে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করে। আর বিষয়টি অভিবাবকদের জানলে পরে রুমা থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জিংএংময় বম বলেন, প্রধান শিক্ষক এর অনৈতিক আচারনের অভিযোগের বিষয়টি দীর্ঘদিন ধরে শুনে আসছি। তবে কোনো শিক্ষার্থী সাহস করে কথা বলতে সাহস পায়নি।

আরো জানা গেছে, এই শিক্ষক দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যালয়টির ছাত্রীদের পরীক্ষায় পাস করিয়ে দেয়া সহ বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন, তবে ভয়ে অনেকে বিষয়টি প্রকাশ করেন নি।

রুমার থানা পাড়ার বাসিন্দা বিপ্লব মারমা বলেন, প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আরো অনেক অহরহ অভিযোগ আছে, যা তদন্ত করে দেখলে সঠিক ও বাস্তব চিত্র বের হয়ে আসবে।

এই ব্যাপারে রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: আবুল কাশেম চৌধুরী বলেন, গত শুক্রবার ভিক্টিম ও তার আত্মীয় স্বজনরা পর্ণোগ্রাফি এবং শিশু ও নারী নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করে, ওই দিনই এই শিক্ষককে প্রেপ্তার করে শনিবার সকালে আদালতে পাঠানো হয়।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।