রুমায় ভিজিএফ চাল বিতরণ

রুমায় ভিজিএফ চাল বিতরণ
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বান্দরবানের রুমা উপজেলার চারটি ইউনিয়নের দু:স্থ ও অতি দরিদ্রদের মাঝে পরিবার প্রতি ১০ কেজি করে ভিজিএফ চাল বিতরণ শুরু হয়েছে।
এ উপরক্ষে শনিবার বেলা ১১ টায় পাইন্দু ইউনিয়ন কার্যালয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। পাইন্দু ইউপি চেয়ারম্যান উহ্লামং মারমা এতে সভাপতিত্ব করেন। এসময় বক্তৃতা প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তার প্রতিনিধি রুবেল দাশ, চান্দা পাড়া কারবারী পাইচি অং মারমা, জুরভারং পাড়াপ্রধান রৌনেম বম কারবারী ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।
ইউপি চেয়ারম্যন উহ্লামং মারমা তার সমাপণি বক্তৃতায় বলেন, প্রাকৃতিক দুূর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থদের এসব ভিজিএফ চাল বিতরণে যাতে কোনো অনিয়ম কিংবা কম ওজন না হয়, সেদিকে সার্বক্ষনিক খেয়াল রাখা হয়েছে। দুর্গম এলাকার সব উপকারভোগিদের চাল বিতরণ শেষ করতে আরো ক’দিন সময় লাগতে পারে। এ চাল বিতরণ কাজে সকল সদস্যদের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।
তিনি আরো বলেন, এলাকায় রাস্তাঘাট সহ সার্বিক উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী তথা বান্দরবানের সাংসদ ও পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর উশৈসিং হাতকে আরো শক্তিশালী করতে হবে। আলোচনা সভায় ইউনিয়নের সকল সদস্য ও সদস্যাগণসহ ভিজিএফ চাল উপকারভোগিরা উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে উপজেলা প্রশাসনের সূত্রে জানা যায়, ঈদুল ফিতর উপলক্ষে রুমা উপজলা অনুকূলে ভিজিএফ সহায়তার অংশ হিসেবে মোট ৬২মেট্রিক টন ২০কেজি চাল বরাদ্দ প্রদান করেছে জেলা প্রশাসন। তার মধ্যে পাইন্দু ইউনিয়নে ১৩মেট্রিক টন ৮৭০কেজি, রুমা সদর ইউনিয়নে ২৫মেট্রিক টন ২২০কেজি, রেমাক্রি প্রাংসা ইউনিয়নে ১০মেট্রিক টন ৪৪০কেজি ও গালেঙ্গ্যা ইউনিয়নে ১২ মেট্রিক টন ৪৯০কেজি।
শনিবার দুপুর থেকে রেমাক্রি প্রাংসা ও গালেঙ্গ্যা ইউনিয়নেও উপকারভোগি দু: স্থ দরিদের মাঝে ভিজিএফ চাল বিতরণ শুরু হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে রুমা সদর ইউনিয়নে গত শুক্রবার সকালে চাল বিতরন শুরু করেছে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।