রোয়াংছড়িতে শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদ বিতরণ করলেন জেলা প্রশাসক

বান্দরবানে রোয়াংছড়িতে শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব বেসিক কম্পিউটার প্রশিক্ষণ শেষে সমাপনী অনুষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন বান্দরবান জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক।
সোমবার সকাল আয়োজিত রোয়াংছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাপ বেসিক কম্পিউটার প্রশিক্ষণ সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রোগ্রামার রাশেদুল আলম সঞ্চালানায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: দাউদ হোসেন চৌধুরী।
এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক দিলিপ কুমার বণিক.বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মাউসাং মারমা,প্রধান শিক্ষক দেবব্রত চাকমা,তারাছা ইউপির চেয়ারম্যান উথোয়াইচিং মারমা,সিনিয়র সহকারি শিক্ষক বোধিচন্দ্র তঞ্চঙ্গ্যা প্রমুখ।
প্রধান অতিথি বলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কনিষ্ঠ পুত্রে শেখ রাসেল নামে প্রধানমন্ত্রী এই ডিজিটাল ল্যাব অক্লান্তিক পরিশ্রম। বর্তমান যুগে জান্তে হলে কম্পিউটার জানান অবশ্যক। বিশ্বকে হাতে মুঠোই সব তথ্য জানতে হলে এ সব প্রয়োজন। পড়া লেখা পাশা পাশি সকল শিক্ষার্থীর এ সব কম্পিউটার জানা থাকলে সরকারি-বেসরকারি চাকুরি করেত বিশেষ অগ্রাধিকার পায়।
তিনি আরো বলেন, প্রথাগত বাল্য বিবাহকে রোধ করতে হবে। নতুন প্রজন্ম ছেলে-মেয়েরা সচেতন বৃদ্ধি করতে হবে। সকলকে সোচ্চা হওয়া পরামর্শের দেন। স্কুলে কম্পিউটার প্রশিক্ষণে বৃদ্ধি করতে জেলা প্রশাসন পক্ষ থেকে নগ অর্থ অনুদান দেন। সনদ বিতরণ শেষে স্কুল পরিদর্শন করে সকল ছাত্র-ছাত্রীকে পড়া লেখা ব্যাপারে খোঁজ খবর নেন।
পরে উপজেলা পরিষদের আয়োজিত একটি বাড়ি একটি খামার কর্মশালায় উদ্বোধন করেন এবং রোয়াংছড়ি উপজেলা ইংরেজী ভাষা ক্লাব এর অনুষ্ঠানে যোগ দেন। পৃথক পৃথক ভাবে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণের মধ্যদিয়ে নির্বাহী অফিসার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মাউসাং মারমা,পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান ক্যসাইনু মারমা,রোয়াংছড়ি সদর ইউপির চেয়ারম্যান চহ্লামং মারমা,নোয়াপতং ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান উবাপ্রæ মারমা,একটি বাড়ি একটি খামার উপজেলা সমন্বয়ক নিতোলাল তঞ্চঙ্গ্যাসহ উপজেলা প্রশাসনে সকল দপ্তরে অফিসারগণ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় প্রধান অতিথি বক্তব্যে বলেন,প্রধানন্ত্রী একান্ত প্রকল্প এ একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পটি। দেশের সকল শ্রেণী পেশায় মানুষ না খেয়ে থাকবে না। ক্ষুধা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে সরকার সতর্স্ফুত ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। যেখানে পুকুর,হাঁস,মুরগি ও গবাদি পুশুর পালনে যুগোপযোগি হিসেবে এ প্রকল্প গড়ের তোলে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। দারিদ্র বিমোচনে ক্ষুদ্র ঋণ প্রদান করে উন্নয়নের ধাবিত হচ্ছে। সকলকে সচেষ্ট থাকতে হবে। বঙ্গ কন্যা প্রধানমন্ত্রী স্বপ্ন পূরণ বাস্তবায়ন ও উন্নয়নে অঙ্গিকার বদ্ধ। অনুষ্ঠান শেষে রোয়াংছড়ি সদর ইপির চেয়ারম্যান উদ্যোগে বিভিন্ন ক্লাব ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঝে ক্রিড়া উপকরণ সামগ্রী বিতরণ করেন এবং উপজেলা চত্বরে ২০১৭ সালে বৃক্ষ রোপনের উদ্বোধন করেন দিলিপ কুমার বণিক।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।