রোয়াংছড়ির চার ইউপি’র ৩ টিতে নৌকা, ১ টিতে বিদ্রোহী প্রার্থী জয়ী

বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে ৪টি ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৩ টিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ও ১ টিতে বিদ্রোহী প্রার্থী জয় হয়েছে। আজ রোববার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হয়। ভোট কেন্দ্রে কেন্দ্রে নারীদের উপস্থিতি লক্ষণীয় ।

উপজেলার ১নং রোয়াংছড়ি সদর, ২নং তাড়াছা, ৩নং আলেক্ষ্যং ও ৪নং নোয়াপতং এই ৪ টি ইউনিয়নের ৩৬টি ভোট কেন্দ্রে ৯০ কক্ষে ভোট গ্রহন করা হয়েছে। চারটি ইউনিয়নের মোট ভোট সংখ্যা ১৯৬৫০ জন। তার মধ্যে নারী-৯৬২২ জন, পুরুষ ভোটার-১০,০২৮ জন।

এজেন্ট ও প্রার্থীদের থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে, ১নং রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের ৯টি কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী নৌকার প্রতীকে মোট- ২৫৭৯ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন মেহ্লাঅং মারমা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সতন্ত্র প্রার্থী আনারস প্রতীকে উমংসিং মারমা পেয়েছেন-১৬২০ ভোট। ব্যবধান হচ্ছেন ৯৫৯ ভোট। রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের নারী-পুরুষ মোট ভোটার-৬২৯৭ ভোট।

২নং তাড়াছা ইউনিয়নে ৯টি কেন্দ্র থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী চশমা প্রতীক নিয়ে ২২৮২ ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন উনুমং মারমা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান উথোয়াইচিং মারমা পেয়েছেন ১৭৮৫ভোট। মোট ভোটের ব্যবধান ৫০০ ভোট। তারাছা ইউনিয়নের নারী-পুরুষ মোট ভোটার ৫৬৭৪জন। তার মধ্যে নারী ভোটার -২৭৯৩ জন ও পুরুষ ভোটার ২৮৮১জন।

৩নং আলেক্ষ্যং ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে ১৯১৯ ভোট পেয়ে তৃতীয় বারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বিশ্বনাথ তঞ্চঙ্গ্যা। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী একমাত্র নারী স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ১৪২৭ ভোট।

৪নং নোয়াপতং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন নৌকার প্রতীকে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী চনুমং মারমা। তিনি মোট পেয়েছেন ১৫০০ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী পান আনারস প্রতীকে শম্বু কুমার তঞ্চঙ্গ্যা পান ১১৫০-ভোট। ব্যবধান ছিল-৩৫০ ভোট।

এ ইউনিয়নের মোট ভোটার ছিল ৩৬৪৯ জন। তার মধ্যে নারী ভোটার-১৭৬৮জন ও পুরুষ ভোটার -১৮৮১ জন।

আরও পড়ুন
1 মন্তব্য
  1. Datta বলেছেন

    আ‌লেক্ষ্যং ইউ‌পির ভোটার আর ভো‌টের ফলাফ‌লে অসামঞ্জস্য ম‌নে হচ্ছে কেন?

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।