রোয়াংছড়ির তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত

নিহত মং প্রু থোয়াই
বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার তারাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হয়েছে, নিহতের নাম মং প্রু থোয়াই। সে স্থানীয় সাবেক মেম্বার ও আওয়ামী লীগ নেতা চাই হ্লা উ’র ছোট ভাই।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার দুপুরে বান্দরবান সদর উপজেলার রুলাইং নামক এলাকা দিয়ে মোটরসাইকেল যোগে জেলা সদরে আসার পথে শসস্ত্র সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করে। এই হত্যাকান্ডের জন্য আওয়ামীলীগ পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস) কে দায়ী করলেও বরাবরের মতো জেএসএস এই হত্যাকান্ডে তারা কোন ভাবেই জড়িত নয় বলে দাবী করেন।
বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি একে এম জাহাঙ্গীর বলেন, আমরা এই ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রæত গ্রেফতার পূর্বক যথাযথ শাস্তির দাবী করছি।
এদিকে ঘটনার পর বান্দরবান জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি একে এম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদক ইসলাম বেবীসহ আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা সদর হাসপাতালে ভীর করেন। এসময় তারা এই হত্যাকান্ডের বিচার দাবী করেন।
রোয়াংছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শরিফুল ইসলাম বলেন, সন্ত্রাসীরা তাকে গুলি করলে সে মারা যায়, কেন গুলি করেছে সেই ব্যাপারে তদন্ত্র করা হবে।
প্রসঙ্গত, গত ২২জুন জেলার রোয়াংছড়ি উপজেলায় অং থুই চিং মার্মা নামে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির এক সমর্থককে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে গুলি করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।