রোয়াংছড়ির যমজ ২ শিশুর চিকিৎসার জন্য সহায়তা চাইলেন অসহায় বাবা-মা

বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে মো: জামাল উদ্দিন ও মর্জিনা বেগমের ঘরে দুই মেয়েকে ঘিরে সাজানো একটি ছোট সংসার। আর এই সংসারে এভন আনন্দের পরিবর্তে জামিলা আক্তার রামিসা এবং জুবেদা আক্তার রাইসা (৬) যমজ দুই বোনকে নিয়ে যেন দু:খের সাগর। চার বছর ধরে হরমোন ও ব্লাড সমস্যা জানিত রোগে ভুগছেন এ নিস্পাপ যমজ দুই বোন। এক সময় দুই শিশু হাসি মুখে এক সাথে মাঠে গিয়ে খেলাধুলার করতেন। এখন নিজের অসুস্থতা কারণে বাড়ির বাইরে বের হয়না। সারাক্ষণ থাকে বাড়িতে মায়ের পাশে এ দুই বোন।

দুবোনের চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা চাইছেন শিশুদের মা মর্জিনা বেগম ও বাবা মো: জামাল উদ্দিন। মো: জামাল উদ্দিন ও মর্জিনা বেগমের ঘরে দুই মেয়েকে ঘিরে সাজানো একটি ছোট সংসারে হারিয়ে গেছে আনন্দ। ছোট একটি মুদি দোকান নিয়ে চলে তাদের। ওই দোকান থেকে যা আয় রোজগার হয়, সেখান থেকে দুই মেয়ে চিকিৎসার এবং সংসার চালানো ব্যবস্থা করছে মো: জামাল উদ্দিন। দুই মেয়েকে চিকিৎসা চালাতে গিয়ে এখন সহায় সম্বল হারিয়ে আজ নি:স্ব জামাল উদ্দিন পরিবার।

পাহাড়বার্তা’কে শিশু দুইটির মা মর্জিনা বেগম বলেন, চার বছর ধরে অসুস্থ দুই মেয়েকে চিকিৎসা চালাতে গিয়ে আমার পরিবার আজ নিঃস্ব হয়ে গেছে। চিকিৎসা চালাতে আমি সবার সহযোগিতা চাই। নিষ্পাপ যমজ দুই বোনকে সুস্থ জীবনে ফিরে পেতে চাই।

তিনি আরো বলেন, পপুুলার ডায়গনস্টিক সেন্টার হাসপাতালসহ অনেক হাসপাতালে পরীক্ষার পরে হরমোনের সমস্যা জনিত রোগ বলে চিকিৎসকরা জানান। টানা চার বছর ধরে মাসে মাসে রক্ত দিয়ে আসছে। রক্তা না দিলে দুই শিশুকে বাঁচিয়ে রাখতে সম্ভব হত না। এ রক্ত দিতে আমি বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরছি। কিন্তু এখন এ দুই মেয়েকে চিকিৎসা চালাতে পারছে না।

নিজের পরিবার সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমার বাবা একজন অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারী। কোন রকম তার পেনশনের টাকায় সহায়তা নিয়ে সংসার চলছে। অনেক কষ্টে বাবা সংসার চালান। সেখানে আমার চিকিৎসার খরচ কীভাবে চালাবেন? কী যে করবো কিছুই বুঝতে পারছি না। দুই মেয়ে বাঁচিয়ে রাখতে কত টাকা খরচ লাগবে আমার নিজেও কোন ধারণা নেই। এ দুই মেয়েকে প্রতি মাসে রক্ত দিতে প্রচুর খরচ হয়।

তিনি আরো বলেন,এখন আমাদের সহায় সম্বল হারিয়ে বিনা চিকিৎসায় বাড়িতে আছি। সকল বিত্তবানদের কাছে চিকিৎসার জন্য সাহায্য প্রার্থনা করছি। কোনও হৃদয়বান ব্যক্তি, কিংবা কোনও প্রতিষ্ঠান যদি জামিলা আক্তার রামিসা এবং জুবেদা আক্তার রাইসাকে আর্থিক সহায়তা করতে চান। দুই শিশুর মা মর্জিনা বেগম এই মোবাইল নম্বরে বিকাশ করতে পারেন ০১৮২৯৩৫১৩৯৮ এবং ০১৮৪০১৬২৪৭৫।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।