রোয়াংছড়ির লিন প্রকল্প থেকে অব্যাহতি পেলেন ইয়াহিয়া আহমেদ

পাহাড়বার্তা’য় সংবাদ প্রকাশের জের

‘রোয়াংছড়িতে লিন প্রকল্পের অর্থ নয় ছয়ের অভিযোগ’ শিরোনামে গত (৯ মার্চ) পার্বত্য জেলার জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল পাহাড়বার্তা’য় একটি সংবাদ প্রকাশের পর এর সত্যতা পাওয়ায় প্রকল্পের উপজেলা সমন্বয়ক মো. ইয়াহিয়া আহমেদকে সমস্ত দায়িত্বে থেকে সরিয়ে সাময়িক অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট অফিস সূত্রে জানা গেছে।

সূত্রে জানা গেছে, জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল পাহাড়বার্তায় সংবাদ প্রকাশের সাথে সাথে বেসরকারি সংস্থা কারিতাসের উদ্যোগে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এতে ইয়াহিয়া আহমেদ এর বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে তদন্ত করা হলে সত্যতা পাওয়া গেছে বলে জানা যায়।

ইয়াহিয়া আহমেদকে কর্মস্থল থেকে প্রত্যাহার করে বর্তমানে জেলা অফিসের বহাল রাখা হয়েছে। তদন্ত কমিটি সুপারিশ করে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন জমা দেওয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনে যথাযথ হলে ইয়াহিয়া আহমেদ চাকুরী থেকে স্থায়ী ভাবে বরখাস্ত করা হতে পারে।

এব্যাপারে কারিতাসের প্রমোশন অফ এগ্রোইকোলজি ইন দ্যা সিএইচটি প্রকল্পের প্রোগ্রাম কর্মকর্তা ও তদন্ত কমিটির সদস্য রুপনা দাশ বলেন, সংবাদ প্রকাশের পর পরই তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্ত প্রতিবেদন কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দেওয়া হয়েছে। এখন শুধু ফলাফল আপেক্ষায় আছি।

লিন প্রকল্পের জেলা কর্মকর্তা প্রভাত চন্দ্র ত্রিপুরা বলেন, সংবাদ প্রকাশের পর থেকে দায়িত্ব থেকে মো. ইয়াহিয়া আহমেদকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত,পার্বত্য চট্টগ্রামের অবহেলিত, সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠীদের স্বাস্থ্য সেবাদান ও জনজীবন এর মান্নোয়নের লক্ষ্যে বান্দরবানের রোয়াংছড়িতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের অর্থায়নে বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠান জাতীয় বেসরকারি সংস্থা কারিতাস কর্তৃক লিন প্রকল্পের আওতায় নিউট্রিশন বিষয়ে রোয়াংছড়ি, তারাছা, আলোক্ষ্যং ও নোয়াপতং সহ ৪টি ইউনিয়নের প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে গিয়ে বরাদ্দের টাকা নয়-ছয়, ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়ম করা হয়েছে বলে উপজেলা সমন্বয়ক মো.ইয়াহিয়া আহমেদ বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করে পাহাড়বার্তা।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।