লংগদু’র ঘটনার প্রতিবাদে বান্দরবানে মানববন্ধন

লংগদু’র ঘটনার প্রতিবাদে বান্দরবানে মানববন্ধন
রাঙামাটির লংগদু’র বিভিন্ন আদিবাসী অধ্যুষিত গ্রামে অগ্নিসংযোগ ও হামলার প্রতিবাদে বান্দরবান শহরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে সম্মিলিত আদিবাসী ছাত্র সমাজ নামে একটি সংগঠন । রবিবার সকালে বান্দরবান প্রেস ক্লাবের সামনে বিভিন্ন ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে তার এই মানববন্ধন করে ।
এর আগে বান্দরবান শহরের পুরাতন রাজবাড়ির মাঠ থেকে ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বান্দরবান প্রেস ক্লাবের সামনে এসে শেষ হয়। এই সময় মানববন্ধনে বান্দরবানের ১১টি আদিবাসী জাতিগোষ্ঠীর বিভিন্ন সংগঠনের নেতা কর্মীরা অংশগ্রহন করে।
জেলা মারমা স্টুডেন্ট কাউন্সিলের সভাপতি অংথুই খই মারমা এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ম্রো স্টুডেন্ট ফোরামের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক অংম্রা ম্রো, ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরামের সহ সভাপতি সুশীল ত্রিপুরা, তঞ্চঙ্গ্যা স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশনের জেলা সভাপতি অনিক তঞ্চঙ্গ্যা, খুমি স্টুডেন্ট ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক রিউলং খুমি, বাংলাদেশ মারমা স্টুডেন্ট কাউন্সিলের মহানগর সভাপতি লুমং প্রু, গোপাল চাকমা,পাসেন বম প্রমুখ।
চাকা স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশনের সভাপতি থোয়োইক্যজাই চাক,পাহাড়ে পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন না হবার কারনে এই ধরণের ঘটনা ঘটছে। ঘটনায় আক্রান্ত অসহায় জুম্ম পরিবার গুলোকে প্রশাসন কর্তৃক নিরাপত্তা ব্যবস্থার মাধ্যমে বসতভিটাতে ফিরিয়ে আনার দাবি জানান।
গত বৃহস্পতিবার দুপুরে খাগড়াছড়ি সদরের চার মাইল এলাকায় রাস্তার পাশের জঙ্গল থেকে লংগদু উপজেলার সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. নুরুল ইসলাম নয়ন এর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শুক্রবার সকালে তার লাশ নিয়ে এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল বের করে, এই মিছিল থেকে লংগদুর তিনটিলা পাড়া, বাত্যাপাড়া, উত্তর ও দক্ষিণ মানিকজুড় ও বড়াদম এলাকার আদিবাসীদের বিভিন্ন গ্রামে হামলা ও অগ্নি সংযোগের ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ করে আদিবাসীদের বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা।

আরও পড়ুন
Loading...