লক্ষীছড়ি উপজেলার একমাত্র কলেজ জাতীয়করণের দাবীতে মানববন্ধন

কলেজ জাতীয়করণে দাবীতে লক্ষীছড়িতে মানববন্ধন
খাগড়াছড়ির অনগ্রসর জনপদ লক্ষীছড়ির একমাত্র কলেজ জাতীয়করণের দাবীতে আজ বুধবার সকালে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা। এ সময় তারা প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত উপজেলার একটি মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজ জাতীয়করণের ঘোষনার আওতায় কলেজটি দ্রুত জাতীয়করণের জোর দাবী জানান।
কলেজ সূত্রে জানা গেছে, পার্বত্য খাগড়াছড়ির জেলার সবচেয়ে অবহেলিত জনপদ লক্ষীছড়িতে জনসাধারণের নিজস্ব অর্থায়নে ২০০২ সালে একমাত্র উচ্চ বিদ্যাপীঠ‘লক্ষীছড়ি কলেজ’ প্রতিষ্ঠিত হয়। কিন্তু অনগ্রসর জনপদের জনগোষ্টি কলেজটি পরিচালনায় রশদ সরবরাহ করতে হিমশিম খাচ্ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র প্রতিশ্রুতির অংশ হিসেবে উপজেলায় একটি মাধ্যমিক স্কুল ইতোমধ্যে সরকারিকরণ হলেও কলেজটি এখনো জাতীয়করণ হয়নি। ফলে উচ্চ শিক্ষায় আগ্রহী এ অঞ্চলের ছেলে-মেয়েরা প্রতিনিয়ত উচ্চ শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
১৬ মে সকাল সাড়ে ১০টায় লক্ষীছড়ি উপজেলা পরিষদের সামনে সড়কের দু’পাশে কলেজ জাতীয়করণের দাবীতে ব্যানার, ফেষ্টুন নিয়ে মানববন্ধন করেন ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, অভিভাবক, জনপ্রতিনিধি ও সর্বসাধারণ।
এ সময় কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি টাতুমনি চাকমা,ভাইস চেয়ারম্যান অংগ্য প্রু মারমা, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও ইউপি চেয়ারম্যান প্রবীল কুমার চাকমা, ইউপি চেয়ারম্যান হরি মোহন চাকমা, ত্রিলন চাকমা, সাবেক চেয়ারম্যান নীল বর্ণ চাকমা,আওয়ামীলীগ নেতা মো. আবুল হাসেম চৌধুরী, কলেজ অধ্যক্ষ মো. আলী মুর্তুজা চৌধুরীসহ জনপ্রতিনিধি,রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন। জনপ্রতিনিধদের পাশাপাশি বক্তব্য রাখেন কলেজ শিক্ষার্থী রাহি চাকমা ও জসি চাকমা।
মানববন্ধন শেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন ছাত্র-ছাত্রী,শিক্ষক ও অভিভাবকরা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার জাহিদ ইকবাল তা গ্রহন করেন এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর প্রেরণে আশ্বস্থ করেন।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।