লামায় আড়াই বছরে ম্যালেরিয়া রোগে আক্রান্ত ৬ হাজার ৮১৮ জন

NewsDetails_01

বান্দরবান জেলার লামা উপজেলায় ম্যালেরিয়া রোগ নির্মূল প্রকল্পের আওতায় উপজেলা পর্যায়ে এডভোকেসি সভা আজ রবিবার দুপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

স্থানীয় বেসরকারী সংস্থা এন জেড একতা মহিলা সমিতির আয়োজনে ও উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ এবং বেসরকারী সংস্থা ব্র্যাক এর সহযোগিতায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পারিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এখিং মার্মার সভাপতিত্বে সভায় পৌরসভার মেয়র মো. জহিরুল ইসলাম প্রধান অতিথি ছিলেন।

NewsDetails_03

এতে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রদীপ কান্তি দাশ, সহকারী পুলিশ সুপার প্রতিনিধি মো. আইয়ুব, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান বাথোয়াইচিং মার্মা, ছাচিংপ্রু মার্মা ও মিন্টু কুমার সেন, ডা. জেসমিন আক্তার প্রমুখ বিশেষ অতিথি ছিলেন। এছাড়া সভায় শিক্ষক, ইমাম, এনজিও প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধি, কারবারী, হেডম্যান, সাংবাদিকগণ অংশ গ্রহণ করেন। সভায় ম্যালেরিয়া রোগ প্রতিরোধ, নির্মূল ও আক্রান্তদের চিকিৎসা বিষয়ে মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে বিস্তারিত তুলে ধরেণ, এন জেড একতা মহিলা সমিতির ম্যালেরিয়া প্রকল্প ম্যানেজার আবুল কালাম।

তিনি বলেন, ২০২৫ সালের মধ্যে ম্যলেরিয়া প্রবণ এলাকা আক্রান্তের হার প্রতি হাজারে এক এর নীচে নামিয়ে আনা ও ২০৩০ সালের মধ্যে ম্যালেরিয়ামুক্ত বাংলাদেশ গড়ার ঘোষণা দিয়েছে সরকার। এ লক্ষে সরকারের পাশাপাশি ম্যালেরিয়া নির্মূলে ব্র্যাাক ও এন জেড একতা মহিলা সমিতি যৌথভাবে কাজ করছে। এ ধারাবাহিকতায় এ রোগ নির্মূলে ২০২৩ সালে উপজেলায় ১ লক্ষ ২০০০টি কীটনাশকযুক্ত মশারি বিতরণের পাশাপাশি সচেতনতামূলক প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতি পাড়ায় পাড়ায় স্বাস্থ্য কর্মী নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তাদের সচেতনতায় উপজেলায় ম্যালেরিয়া রোগে মৃুত্যর হার শূণ্যের কৌটায় নেমে এসেছে।

এদিকে এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২০২২ সালে উপজেলায় ৪ হাজার ১২৭ জন, ২০২৩ সালে ২ হাজার ৪৪৪ জন ও ২০২৪ সালের মে মাস পর্যন্ত ২শ ৪৭ জন ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তরা সবাই সরকারী বেসরকারী চিকিৎসায় সুস্থ হয়েছেন। কেউ মারা যায়নি। বর্তমানে উপজেলায় কোন ব্যক্তি ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত নেই বলে জানান প্রকল্পের ম্যানেজার আবুল কালাম।

আরও পড়ুন