লামার সরই ইউপি নির্বাচনে এক প্রার্থীকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ

আসন্ন ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য দ্বিতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে বহিরাগত লোকজনের প্রভাব বিস্তার, প্রকাশ্যে সীল মারা, কেন্দ্র দখল, প্রার্থীর প্রাণ নাশ, বিভিন্ন মিথ্যাচার, ভোটের ফলাফল ছিনিয়ে নেয়ার জন্য প্রশাসন মেকানিজ, গুজব ছড়িয়ে ভোটারদেরকে বিভ্রান্ত সহ নানান অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বান্দরবানের লামা উপজেলার সরই ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু হানিফ।

আজ মঙ্গলবার বিকালে লামা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ তুলেন তিনি। এ সময় তিনি সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের স্বার্থে কেন্দ্রে বিচারিক ক্ষমতাসহ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, সেনাবাহিনী, বিজিবি সহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েনের দাবী জানান। সংবাদ সম্মেলনে প্রার্থীর ভাই নাজিম উদ্দিন ও সমর্থক নাছির উদ্দিনসহ সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

লিখিত বক্তব্যে প্রার্থী আবু হানিফ বলেন, আমি আবু হানিফ উপজেলার সরই ইউনিয়নের একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী, নির্বাচনে আমার মার্কা আনারস। নির্বাচনে প্রার্থী হওযার পর থেকে আমার ও আমার সমর্থকদের উপর প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থীর কর্মী বাহিনী দিয়ে একের পর এক হুমকি এবং ভয় ভীতি প্রদান করে যাচ্ছেন। এসব বিষয়ে আমি আইনশৃখলা বাহিনী সহ রিটার্নিং অফিসারের নিকট লিখিতভাবে বিষয়গুলো জানিয়েছি। প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থীর মদদে তার কর্মী ও সমর্থকেরা ইতিমধ্যে আমার নির্বাচনী পোস্টার ছিড়ে ফেলেছেন।

এখন প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী প্রকাশ্য হুমকি দিয়ে বলেন, নির্বাচনের দিন যে কোন ধরনের প্ররিস্থিতি সৃষ্টি করে ফলাফল তার অনূকুলে নিবেন। এরই ধারাবাহিকতায় পার্শ্ববর্তী লোহাগাড়া উপজেলা থেকে ভাড়াটিয়া লোকজন এনে ২,৪,৭ও ৮নং ওয়ার্ডের কেন্দ্র সমূহে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অস্বাভাবিক করার জন্য আমার প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী নীল নকশা চূড়ান্ত করেছে বলে তার সমর্থিত কর্মী ও সমর্থকরা প্রকাশ্যে বলে বেড়াচ্ছেন।

বক্তব্যে আবু হানিফ আরো উল্লেখ করেন. ইতিমধ্যে প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী তার পছন্দের লোকদেরকে ৯টি কেন্দ্রে প্রিজাইডিং, সহকারী প্রিজাইডিং ও পুলিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার জন্য একটি তালিকা অতি গোপনে রিটার্নিং অফিসারের নিকট জমা দিয়েছেন। তার পছন্দের লোকজন ইতিমধ্যে প্রশিক্ষণও গ্রহণ করেছেন। আমার প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী ও তার লোকজন বলে বেড়াাচ্ছেন আমি তাকে সমর্থন দিচ্ছি। যা চরম একটি মিথ্যা কথা। এক ভোট পেলেও আমি নির্বাচনী মাঠে আছি ও থাকবো। যে কোন ধরণের গুজব ছড়িয়ে ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতির হার কমানাের জন্য প্রতিদ্বন্ধী নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. ইদ্রিস কোম্পানী পরিকল্পনা করেছেন।

এ বিষয়ে লামা থানা পুলিশের অফিসার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, প্রার্থীদের বিভিন্ন বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তবে তদন্তে এসব অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।