লামায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের ত্রাণ দিলেন মন্ত্রী বীর বাহাদুর

লামায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের হাতে ত্রাণ সামগ্রী তুলে দিচ্ছেন, পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি
বান্দরবানের লামা উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়ন সদর বাজারে সংঘটিত অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ সামগ্রী প্রদান করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি।
এ উপলক্ষে আজ বুধবার দুপুরে রুপসীপাড়া বাজার প্রাঙ্গনে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ছাচিং প্রু মার্মার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন-বান্দরবান জেলা প্রশাসক মো. দাউদুল ইসলাম,আলীকদম সেনাবাহিনীর জোন কমান্ডার লে. কর্ণেল সাইফ শামীম পিএসপি, নির্বাহী অফিসার নূর-এ-জান্নাত রুমি,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আলী হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপার আবু সালাম চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইসমাইল, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য লক্ষীপদ দাশ, মোস্তফা জামাল ও ফাতেমা পারুল,আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য কাজল কান্তি দাশ।
সভায় এ পার্বত্য মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, ঘর, দোকান পাঠ কিংবা যে কোন প্রতিষ্ঠানই নির্মাণ করেন না কেন, তা যেন পরিকল্পিত হয়। কোন কিছু পরিকল্পিতভাবে নির্মিত হলে, দূর্যোগে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কম হয়। তিনি আরও বলেন, অগ্নিকান্ড প্রাকৃতিক দূর্যোগ নয়, এটি মানুষের সৃষ্ট দূর্যোগ। মানুষের অসচেতনতা ও অবহেলার কারনেই এ দূর্যোগ হয়। তাই সকলকে এ ব্যাপারে বেশি বেশি সচেতন হওয়ার পাশাপাশি প্রত্যেক দোকান, ঘর ও যে কোন প্রতিষ্ঠানের সামনে অন্তত এক বস্তা বালু ও বালতি ভর্তি পানি রাখার আহবান জানান তিনি। শেষে মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি ক্ষতিগ্রস্তদের হাতে ত্রাণ সামগ্রী তুলে দেন।
রুপসীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ছাচিং প্রু মার্মা বলেন,বান্দরবান জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দেড় বান করে ঢেউটিন, নগদ সাড়ে ৭ হাজার করে নগদ টাকা ও ৩০ কেজি করে চাউল, পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকার চেক ও ২০ কেজি করে চাউল, আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কাজল কান্তি দাশ রোটারি ক্লাবের পক্ষ থেকে প্রত্যেক ক্ষতিগ্রস্তকে নগদ ১৫০০টাকা এবং ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকেও নগদ ১ হাজার টাকা হারে প্রদান করা হয়। এর আগে অগ্নিকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং।
উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার ভোররাতে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে রুপসীপাড়া বাজারের ৩১টি দোকান সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এতে ব্যবসায়ীদের প্রায় দুই কোটি টাকার ক্ষতি হয়।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।