লামায় ইয়াবা দিয়ে নারীকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন ২ জন

বান্দরবানের লামা উপজেলায় জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে ইয়াবা দিয়ে মিনু আক্তার (৪৩) নামের এক নারীকে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলেন প্রতিপক্ষের দুই ব্যক্তি। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নের অংহ্লা পাড়ায়।

ফেঁসে যাওয়া ব্যক্তিরা হলেন,রুপসীপাড়া ইউনিয়নের মো. শাহ আলম (৪৫) ও পৌরসভা এলাকার চেয়ারম্যান পাড়ার তোফাজ্জল হোসেন (৩২)। পরে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর বিচক্ষণতায় মিথ্যা অভিযোগ থেকে রেহাই পায় মিনু আক্তার। মিনু আক্তার একই ইউনিয়নের অংহ্লা পাড়ার বাসিন্দা আবদুল মন্নানের স্ত্রী।

সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে শাহ আলম ও মিনু আক্তারের মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। সম্প্রতি মিনু আক্তারের দায়ের করা মামলায় মো. শাহ আলম জেল খাটেন। এর জের ধরে রবিবার দিনগত রাত ৯টার দিকে মিনু আক্তারের ঘরের ভিতরে ১০৫ পিচ ইয়াবা ঢুকিয়ে দিয়ে স্থানীয় সেনাবাহিনী ও পুলিশকে খবর দেন শাহ আলম। খবর পেয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১০৫ পিচ ইয়াবাসহ মিনু আক্তারকে আটকও করেন।

পরে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর জিঙ্গাসাবাদের এক পর্যায়ে মিনু আক্তারের ঘরের ভিতর ইয়াবা ঢুকিয়ে দেওয়ার কথা স্বীকার করেন শাহ আলম। শেষে অভিযুক্ত মিনু আক্তারকে ছেড়ে দিয়ে দুই জনকে আটক করেন পুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে লামা থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মো. মিজানুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় ফেঁসে যাওয়া দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।