লামায় কৃষকের শতাধিক পেঁপে গাছ কেটে দিলো প্রতিপক্ষ

বান্দরবানের লামা উপজেলায়এক কৃষকের তিনমাস বয়সী ১৩০টি পেঁপে গাছ কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষ। এতে কৃষকের প্রায় দেড় লাখ টাকার ক্ষতি হয়। জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নের দরদরী ইব্রাহিম লিডার পাড়ায় প্রতিপক্ষের লোকজন রবিবার দিনগত রাতে এ ঘটনা ঘটায়।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুই নারীসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক আবদুল হাকিম (৪৫)। অভিযুক্তরা হলো- ইউনিয়নের ইব্রাহিম লিডার পাড়ার বাসিন্দা কাজল রেখা (৩২), মো. কাইয়ুম (২৪), রুবি আক্তার (২৮) ও রুহুল আমিন (২৮)।

অভিযোগে জানা যায়, ইব্রাহিম লিডার পাড়ার বাসিন্দা মৃত কালা মিয়ার ছেলে কৃষক আবদুল হাকিম অভিযুক্তদের চলাচল পথের পাশে জৈনক ছাবের হোসেনের কাছ থেকে ২০ শতক জমি লাগিয়ত নিয়ে পেঁপে চাষ করেন। অভিযুক্তদের সাথে জনৈক বাবলুসহ আরো কিছু লোকজনের সাথে জমি নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়। পরে কাজল রেখা বাদী হয়ে কৃষক আবদুল হাকিমসহ ৭ জনকে অভিযুক্ত করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আপোষ মিমাংশা করে দেয়ার আশ্বাস দেন। এতে কাজল রেখা সহ অপরাপর অভিযুক্তরা ক্ষিপ্ত হন। এক পর্যায়ে রবিবার দিনগত গভীর রাতে অভিযুক্তরা আবদুল হাকিমের সৃজিত ৩ মাস বয়সী ১৩০টি পেঁপে গাছ কেটে দেয়।
সোমবার বিকেলে সরেজমিনে ওই খেতে গেলে দেখা যায়, পুরো ২০ শতক জমিতে সৃজিত গাছ কেটে ফেলে রেখেছে তারা।

এ সময় কৃষক আবদুল হাকিম বলেন, অভিযুক্তরা গত কয়েকদিন ধরে আমাকে মারধরসহ অপূরণীয় ক্ষতি সাধণ করার হুমকি প্রদান করে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় অভিযুক্তরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে একে অপরের যোগসাজসে আমার সৃজিত পেঁপে গাছ কেটে দিয়ে ক্ষতিসাধন করেছে। এদিকে প্রতিপক্ষ কাজল রেখাসহ অন্য অভিযুক্তরা জানান, আবদুল হাকিমের পেঁপে গাছ কাটার সঙ্গে তারা জড়িত নয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রুপসীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য শফিউল আলমসহ স্থানীয়রা বলেন, ঘটনাটি খুবই ন্যাক্কারজনক, অভিযুক্তরা গাছগুলো কেটে অমানুষের পরিচয় দিয়েছেন।

এ বিষয়ে লামা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক ত্রিদীপ বড়ুয়া বলেন, কৃষক আবদুল হাকিমের লিখিত অভিযোগ পেয়ে আজ সোমবার বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।