লামায় তুচ্ছ ঘটনায় বৃদ্ধ দম্পতিকে কুপিয়েছে এক যুবক

বান্দরবানের লামা উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ যুবকের দায়ের কোপে এক বৃদ্ধ দম্পত্তি রক্তাক্ত জখম হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি সাঙ্গু গয়ালমারা এলাকায়। এতে আহতরা হলেন, সাঙ্গু গয়াল মারা এলাকার বাসিন্দা মৃত আমির হোসেনের ছেলে নজির আহমদ (৬৫) ও তার স্ত্রী হাছিনা বেগম (৫০)। আর অভিযুক্ত আবদুল মালেক (৩৫) ওই এলাকার বাসিন্দা আবদুল মোতালেবের ছেলে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, জমি জমা সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বৃদ্ধ নজির আহমদ ও আবদুল মালেকের মধ্যে ঝগড়া হয়। এর জের ধরে শুক্রবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে আবদুল মালেক ক্ষিপ্ত হয়ে নজির আহমদ ও তার স্ত্রী হাছিনা বেগমকে দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায়। এতে বৃদ্ধ দম্পতি মারাতœক রক্তাক্ত জখম হন। পরে স্থানীয়রা আহতদেরকে উদ্ধার করে কাছাকাছি চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। প্রতিপক্ষের দায়ের কোপে দম্পত্তি রক্তাক্ত জখম হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. জাকের হোসেন মজুমদার বলেন, দুর্গম পাহাড়ি এলাকা ও গভীর রাতে হওয়ার কারণে ঘটনাস্থলে তাৎক্ষনিকভাবে যাওয়া সম্ভব হয়নি। তবে স্থানীয়দের সহায়তায় আহত দম্পতিকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আপ্পেলা রাজু নাহা বলেন, বৃদ্ধ দম্পতির ওপর হামলার ঘটনা কেউ জানায়নি,এ ঘটনায় ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।