লামায় ত্রিপুরা যুবতীকে গণ ধর্ষণ !

বান্দরবানের লামা উপজেলায় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বাগানে ডেকে নিয়ে এক আদিবাসী ত্রিপুরা সম্প্রদায়ের যুবতীকে (২৫) প্রেমিকসহ আরো ৫জন মিলে গণ ধর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রবিবার দিনগত রাতে উপজেলার আজিজনগর ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি পূর্বচাম্বী এলাকার গরুরলোড়াস্থ ক্লিপটন গ্রুপের বাগানের পাশে একটি খামার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। শুধু তাই নয়, এ সময় নির্যাতিতার কাছ থেকে নগদ ৩০ হাজার টাকাও কৌশলে নিয়ে পালিয়ে যায় ধর্ষক নুরুল হুদা (২৭)। নুরুল হুদা উপজেলার সরই ইউনিয়নের পুইট্টা পাড়ার বাসিন্দা মৃত ইসহাকের ছেলে। ধর্ষিতার বাড়ি বান্দরবান সদর উপজেলার মিলনছড়িতে বলে জানা গেছে।
অভিযোগে জানা যায়, বেশ কয়েকদিন আগে মোবাইলের মাধ্যমে ওই যুবতীর সাথে নুুরুল হুদার পরিচয় হয়। পরিচয়ের পর উভয়ের মধ্যে সৃষ্টি হয় প্রেমের সম্পর্ক। যুবতীকে বিয়ের আশ্বাসও দেয় নুরুল হুদা। এক পর্যায়ে নুরুল হুদার কথামত গত রবিবার বিকালে ওই যুবতী আজিজনগর ইউনিয়নস্থ ক্লিপটন গ্রুপের বাগানের পাশে গেলে ৬ জন মিলে তাকে ধর্ষণ করে। পরে নির্যাতিতার ব্যাগে থাকা নগদ ৩০ হাজার টাকাও নিয়ে যায় নুরুল হুদা। এ ঘটনায় নির্যাতিতা যুবতী বাদী হয়ে সোমবার সকালে প্রেমিক নুরুল হুদাসহ আরো ৫ জনের বিরুদ্ধে লামা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন।
এই ব্যাপারে লামা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান বলেন,আসামিদের গ্রেফতার করতে আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।

আরও পড়ুন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।