লামায় দ্রুত বাড়ছে করোনা রোগী : নতুন আক্রান্ত ৭ জন

হু হু করে বাড়ছে বান্দরবানের লামা উপজেলায় প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সারা দেশের মত উপজেলায়ও পালিত হচ্ছে লকডাউন।

এদিকে লকডাউনের আগের দিনেই ৭ ব্যক্তির নমুনা পরীক্ষার ফলাফল পজেটিভ এসেছে, অর্থাৎ তাদের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এ নিয়ে উপজেলায় শুরু থেকে মোট করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়লো ৮৫ জনে। এর মধ্যে ৭৫ জন সুস্থ হয়েছে বাড়ী ফিরেছেন। বাকী ৩জন আইশোলেশন ও হোম কোয়ারেন্টাইনে চিকিৎসাধীন আছেন ৭জন। আজ বৃহস্পতিবার (১জুলাই) দুপুরে এ তথ্য নিশ্চিত করেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) মনিরুজ্জামান মোহাম্মদ।

তিনি জানান, ১১ জনের মধ্যে রুপসীপাড়া ইউনিয়নের অংহ্লাপাড়ার সৈয়দ আলম, পৌরসভা এলাকার রাজবাড়ী গ্রামের তাজুল ইসলাম, হাসপাতাল পাড়ার আফরিন আক্তার, মধুঝিরি গ্রামের মো. বাবু, লামা সদর ইউনিয়নের ছোটবমু গ্রামের আবুল হাসেম, মেরাখোলা গ্রামের স্বনুপ কান্তি শর্মা, বমুবিলছড়ি ইউনিয়নের ফাদুখোলা গ্রামের মমতাজুল ইসলামের নমুনা দেওয়ার পর পরীক্ষার জন্য পাঠানো হলে বৃহস্পতিবার তাদের নমুনা পরীক্ষার প্রতিবেদনে করোনা পজেটিভ আসে। করোনা রিপোর্ট পজেটিভ হলেও বর্তমানে তারা মোটামুটি সুস্থ আছেন।

অপরদিকে করোনা সংক্রমন এড়াতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নে পুলিশের পাশাপাশি সেনাবাহিনী মাঠে কাজ করতে দেখা গেছে।

এ বিষযে লামা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রেজা রশীদ বলেন, প্রাণঘাতী করোনা সংক্রমন এডাতে আক্রান্তদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইশোলেশন ও হোম কোয়ারেন্টাইনে রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া ১ জুলাই থেকে সারাদেশের মত উপজেলায়ও লকডাউন ঘোষনা করা হয়েছে। লকডাউন বাস্তবায়নে পুলিশ ও সেনাবাহিনী মাঠে কাজ করছে। কেউ স্বাস্থ্য বিধি অমান্য করলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।