লামায় ফিল্মি স্টাইলে যুবককে তুলে নিয়ে মারধর : আটক ২

বাগানের কলাগাছের চারা খাওয়াকে কেন্দ্র করে বান্দরবানের লামা উপজেলায় আবদুর রহিম (৩৭) নামের এক যুবককে ফিল্মি স্টাইলে পিটিয়ে আহত করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। আজ রবিবার (১৫আগস্ট) দুপুরে পৌরসভা এলাকার লামামুখ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনা ঘটে। আবদুর রহিম উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নের চাহ্লাখইন হেডম্যান পাড়ার বাসিন্দা নুরুল কবিরের ছেলে। এ ঘটনায় জড়িত ২জনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয়রা।

সূত্র জানায়, গত কয়েকদিন আগে রুপসীপাড়া ইউনিয়নের চাহ্লাখইন হেডম্যান পাড়ার বাসিন্দা আবু তাহেরের ছেলে মো. বেলালের গরু পাশের আবদুর রহিমের বাগানের কলা গাছের চারা খেয়ে নষ্ট করে। পরে আবদুর রহিম ওই গরুকে মেরে আবু তাহেরের ধান ক্ষেতে তাড়িয়ে দেয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়। এ ঘটনায় আবু তাহের থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে উভয় পক্ষকে নিয়ে রবিবার দুপুরে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে থানায় বৈঠকের সিদ্ধান্ত হয়। থানায় যাওয়ার সময় আবদুর রহিমকে ১০-১২জনের সংঘবদ্ধ যুবক উপজেলা শহরের চৌরাস্তা থেকে ফিল্মি স্টাইলে টমটম গাড়িতে তুলে লামামুখ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নিয়ে যায়। সেখানে আবদুর রহিমকে বেধম মারধর করলে স্থানীয়রা হাসপাতাল পাড়ার বাসিন্দা কবির হোসেনের ছেলে কাউচার (২০) ও রুপসীপাড়া ইউনিয়নের বালুরচর পাড়ার বাসিন্দা আবু তাহেরের ছেলে বেলালকে (২১) আটক করে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২জনকে আটক করে এবং আহত আবদুর রহিমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

এদিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে দায়িত্বরত চিকিৎসক রায়হান জান্নাত বিলকিছ সুলতানা জানান, আহত আবদুর রহিমের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে লামা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, মারধরের ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও পড়ুন
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।